আনোয়ারায় সামান্য বৃষ্টিতেই সড়কে হাঁটু পানি, জনদুর্ভোগ

নিউজ নিউজ

এডিটর

প্রকাশিত: ৬:৩৫ অপরাহ্ণ, জুলাই ১১, ২০২০

ডি এইচ মনসুর, আনোয়ারা :

Advertisement

চট্টগ্রামের আনোয়ারা উপজেলার গুরুত্বপূর্ণ একটি সড়ক বৃষ্টি হলেই পানিতে ডুবে যায়। ১ কিলোমিটার ড্রেনের জন্য এই পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। কর্তৃপক্ষের সামান্য উদ্যোগ এলাকার হাজারো মানুষ এ দুর্ভোগ থেকে মুক্তি পেতে পারে।
জানা গেছে, উপজেলার জুঁইদন্ডী ঈশ্বর বাবুর ঘাট থেকে বন্দর কমিউনিটি সেন্টার পর্যন্ত মোহছেন আউলিয়া সড়কটি জেলা-উপজেলা সদরে যাতায়াতের অন্যতম মাধ্যম।

এ সড়ক দিয়ে প্রতিদিন শত শত বাস,ট্রাক, কার, মাইক্রো, অটোরিকশাসহ নানা ধরনের গাড়ি চলাচল করে থাকে। দোহাজারী সড়ক ও জনপথ বিভাগের (সওজ) এ সড়কটির সংস্কার হয়নি দীর্ঘদিন।
সরেজমিন দেখা যায়, রাস্তাটির বটতলী রুস্তমহাট লেদু মেম্বার মার্কেট থেকে শাহ মোহছেন আউলিয়ার মাজার পর্যন্ত এক কিলোমিটার অংশে প্রতিনিয়ত পানি জমে থাকে।

স্থানীয় ব্যবসায়ী আক্কাস উদ্দিন বলেন, বটতলী রুস্তমহাট এলাকার গুরুত্বপূর্ব অংশে জলাবদ্ধতা তৈরি হয়েছে। যেন দেখার কেউ নেই। পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা না থাকায় সমস্যা আরও বাড়ছে।

অটোরিকশা চালকমো খোরশেদ জানান, সড়কে বেশ কয়েকটি জায়গায় পানি জমে খানাখন্দের সৃষ্টি হয়েছে। এ কারণে ঝুঁকি নিয়ে হেলেদুলে পথ চলতে হয়। অনেক সময় পানির ছিটকে পড়ে পথচারীর কাপড় নষ্ট হয়। এতে আমাদের গালমন্দ শুনতে হয়।

স্থানীয় বটতলী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান অধ্যাপক এম এ মানান চৌধুরী বলেন, সওজ বিভাগের এ সড়কটি দীর্ঘদিন ধরে মেরামত হয়নি। তাছাড়া পানি নিষ্কাশনে কোনো ব্যবস্থাও নেই। এ কারণে বৃষ্টি হলেই জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়। বিষয়টি আমি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছি।

এ বিষয়ে দোহাজারী সড়ক ও জনপথ বিভাগের (সওজ)
উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী বলরাম চাকমা বলেন, সড়কের ওই অংশে পানি নিষ্কাশনের জন্য নালার জায়গা না থাকায় জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়েছে। শিগগির ওই স্থানে ইট-বালি দিয়ে জনদুর্ভোগ লাঘবের চেষ্টা করা হবে।