আনোয়ারায় মেরে ফেলার ভয় দেখিয়ে ছাত্র বলৎকার,পরিচালক আটক

নিউজ নিউজ

এডিটর

প্রকাশিত: ৮:১৪ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ৮, ২০২০

ডি এইচ মনসুর, আনোয়ারা :

চট্টগ্রামের আনোয়ারা উপজেলার বারশত ইউনিয়নের চালিয়াতলী আনোয়ারুল উলুম মাদ্রাসার এক ছাত্রকে বলৎকার করার অভিযোগে পরিচালক মাওলানা মহিবুল্লাহ(৩৯)কে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

গতকাল সকালে মাদ্রাসা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।
পরে উপজেলার বরুমচড়া ইউনিয়নের বাসিন্দা ওই ছাত্রকে উদ্ধার করে ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে পাঠানো হয়। গ্রেপ্তারকৃত মহিবুল্লাহ উপজেলার বারশত ইউনিয়ন চালিয়াতলী গ্রামের মৃত নুরল আলমের পুত্র।

ছাত্রটির মা জানান,গত শুক্রবার সকাল ১০ টায় মেরে ফেলার ভয় দেখিয়ে আমার ছেলেকে মাদ্রাসার একটি কক্ষে নিয়ে বলৎকার করে মাদ্রাসার পরিচালক মহিবুল্লাহ।
এই সময় ঘটনা স্থানীয়দের জানালে তারা  মুহিবুল্লাহকে ধরে পুলিশের হাতে তুলে দেন। এর আগে বেশ কয়েবার কেফায়েত উল্লাহ নামের আরেক শিক্ষক ছেলেকে বলৎকার করেছিল।

বিষয়টা ছেলে আমাকে জানালে মান সম্মানের ভয়ে কাউকে না জানিয় মাদ্রাসার পরিচালকে জানায়।পরি মহিবুল্লাহ এই ধরনের ঘটনা আর হবে না বলে আশ্বাষ দিয়ে ঐ শিক্ষককে মাদ্রাসা থেকে বিদায় করে দেন।
ভিকটিম ছাত্র বলেন,ছুরি দিরে মেরে ফেলার ভয় দেখিয়ে আমাকে চার পাচ বার বলৎকার করে।

আনোয়ারা থানার ভারপ্রাপ্ত অফিসার ইনচার্জ দুলাল মাহামুদ বলেন মাদ্রাসা পরিচালক মুহিবু্ল্লকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।
প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে মুহিবুল্লাহ বলৎকার করার কথা স্বীকার করেছে। তার বিরুদ্ধে বলৎকারের অভিযোগ ছাত্রটির মা বাদী হয়ে মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছেন।
ছেলেটিকে ডাক্তারী পরিক্ষার জন্য চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।