ঢাকাবুধবার , ২৪ এপ্রিল ২০২৪
  1. সর্বশেষ

আদমদীঘিতে বাড়িতে খামারীকে আটক রেখে টাকা আদায় ,নারীসহ গ্রেফতার-২

প্রতিবেদক
নিউজ এডিটর
২ মার্চ ২০২৪, ২:১২ পূর্বাহ্ণ

Link Copied!

মোঃ মোমিন খান, স্টাফ রিপোর্টার (বগুড়া) ঃ

বগুড়ার আদমদীঘিতে ছাগলের খামার তৈরি করার প্রলোভনে আনোয়ার হোসেন নামের এক খামারীকে কৌশলে বাড়িতে ডেকে নিয়ে আটক রেখে হত্যার হুমকি নির্যাতন ও একলাখ টাকা চাঁদা আদায় ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় পুলিশ ভিকটিম খামারী নাটোর জেলার গুরুদাসপুর উপজেলার খামার পাথুরিয়া গ্রামের আনোয়ার হোসেনকে উদ্ধার ও ঘটনার সাথে জড়িত নারীসহ দুইজনকে গ্রেফতার করেছে।

গত বৃহস্পতিবার (২৯ ফেব্রুয়ারী) দুপুরে আদমদীঘি উপজেলার ছোটআখিড়া গ্রামের জনৈক আব্দুল মজিদের বাড়ি থেকে খামারীকে উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় গত বৃহস্পতিবার রাতে খামারী আনোয়ার হোসেন বাদী হয়ে আদমদীঘি থানায় মামলা স্বামী স্ত্রীসহ ৫জনের বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করেন। গ্রেফতারকৃতরা হলো, দুপচাঁচিয়া উপজেলার জাজিরা গ্রামের আব্দুর রাজ্জাকের ছেলে হেলাল প্রামানিক (৪২) ও আদমদীঘি উপজেলার ছোটআখিড়া গ্রামের আব্দুল মজিদের স্ত্রী মালা বিবি ওরফে টপি (৩৫)।

আদমদীঘি থানা পুলিশ জানায়, নাটোর জেলার গুরুদাসপুর উপজেলার খামার পাথুরিয়া গ্রামের ছাগল ও দুম্বা খামারী আনোয়ার হোসেনের সাথে দুপচাঁচিয়া উপজেলার জয়পুরপাড়ার ফারাজানা (২৫) নামের এক নারী তার বাড়িতে ছাগলের খামার তৈরি করবেন এ বিষয়ে পরামর্শ করার কথা বলে কৌশলে গত বৃহস্পতিবার (২৯ ফেব্রুয়ারী) দুপুরে ওই নারীর বাসায় ডেকে নেয়। এরপর নাটোরের খামারী আনোয়ার হোসেনকে আটক রেখে নারীর সাথে মোবাইল ফোনে ছবি ধারন, হত্যার হুমকি ও চার লাখ টাকা চাঁদা দাবী করে। হুমকিতে খামারী আনোয়ার হোসেন তার ভাই হান্নান সরকারকে মোবাইল ফোনে জানালে সে এক লাখ টাকা বিকাশে গ্রেফতারকৃত হেলাল প্রামানিককে প্রদান করে আদমদীঘি থানা পুলিশকে অবহিত করেন। এদিকে অবিযোগের প্রেক্ষিতে আদমদীঘি থানা পুলিশ প্রযুক্তির মাধ্যমে অনুসন্ধান চালিয়ে আক্কেলপুর উপজেলার রাইকালি বাজারে একটি বিকাশ দোকানে টাকা উত্তোলনের সময় হেলাল প্রামানিককে আটক করেন। তার দেয়া তথ্যানুসারে আদমদীঘি উপজেলার ছাতিয়ানগ্রাম ইউপির ছোটআখিড়া গ্রামের আব্দুল মজিদের বাড়ি থেকে আটক খামারী আনোয়ার হোসেনকে উদ্ধার ও আব্দুল মজিদের স্ত্রী মালা বিবিকে গ্রেফতার করা হয়। এসময় পুলিশ চাঁদার ১১ হাজার টাকা, একটি মোটরসাইকেল ও দুটি মোবাইল ফোন জব্দ করেন।

মামলার তদন্তকারি উপ পরিদর্শক তারেক হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, অপর আসামীদের গ্রেফতারে বিভিন্ন স্থানে অভিযান চলছে।
s

137 Views

আরও পড়ুন