রামু’র কাউয়ারখোপে সাবেক ইউপি সদস্যকে লাঞ্ছিত ও মারধর এলাকাবাসীর ক্ষোভ

X-MUP-Kawarkhop.jpg

দিদারুল আলম জিসান
রামু, কক্সবাজার প্রতিনিধি।

কক্সবাজারের রামু উপজেলার কাউয়ারখোপ ইউনিয়নের মৃত আলী আহমদের পুত্র সাবেক ইউপি সদস্য চেহের আলী (৬৫) কে প্রকাশ্যে মারধর ও লাঞ্ছিত করেছে। জানা যায়, কাউয়ারখোপ বইলতলী এলাকার সাবেক ইউপি সদস্য চেহের আলীর পুত্র মোহাম্মদ আলীর কাছে মোটর সাইকেল জিম্মায় রেখে মইশকুম এলাকার বদিউর রহমানের ছেলে আমান উল্লাহ (আনু) ১,৪০,০০০ (একলক্ষ চল্লিশ হাজার) টাকা নেয়। যথাসময়ে টাকা ফেরত দেওয়ার কথা থাকলেও টাকা ফেরত দিতে রাজি হচ্ছে না । এমনকি টাকা নেওয়ার কথা আমান উল্লাহ (আনু) অস্বীকার করে মোটর সাইকেলটি ফেরত চায়। তাছাড়া গত ৫ ফেব্র“য়ারি আমান উল্লাহর পিতা বদিউর রহমান মোহাম্মদ আলীর কাছ থেকে আরো ত্রিশ হাজার টাকা জোর পূর্বক ছিনিয়ে বলে অভিযোগ করে।
এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে কাউয়ারখোপ ইউনিয়ন পরিষদ কমপ্লেক্স এর সামনের বাজার চত্ত্বরে সাবেক ইউপি সদস্য চেহের আলীকে কাউয়ারখোপ পূর্বপাড়া এলাকার মৃত রশিদ আহমদের পুত্র আবদুল আজিজ ও আবদুল শুক্কুর এবং আবদুল শুক্কুরের পুত্র এরশাদ ও আমজাদ প্রকাশ্য দিবালোকে জনসম্মুখে মারধর ও লাঞ্ছিত করে মাটিতে লুটিয়ে প্রবীণ ও সাবেক ইউপি সদস্য চেহের আলীর পকেটে থাকা এক ভরি ওজনের স্বর্ণের চেইন এবং নগদ সাড়ে আট হাজার টাকা মারধরকারীরা ছিনিয়ে নিয়েছে বলে জানান। অন্যদিকে সাবেক ইউপি সদস্য চেহের আলীর পুত্র মোহাম্মদ আলী উক্ত মোটর সাইকেলটি আমান উল্লাহ আনু’র নিকট থেকে জোর পূর্বক কেড়ে নিয়েছে বলেও জানান স্থানীয়রা।
একজন প্রবীণ ও সাবেক ইউপি সদস্যকে প্রকাশ্যে মারধর ও লাঞ্ছিত করার বিষয়টি নিয়ে এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে। যে কোন মুহুর্তে টাকা লেনদেন ও মোটর সাইকেলের বিষয়টি নিয়ে এলাকায় অপ্রীতিকর ঘটনা ও ত্রিপক্ষীয় রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের সমুহ সম্ভাবনা রহিয়াছে জানান এলাকার জনগণ।
এ বিষয়ে মুঠোফোনে আলাপকালে কাউয়ারখোপের বর্তমান চেয়ারম্যান মোস্তাক আহমদ বলেন, সংঘটিত বিষয়টির ব্যাপারে এখনো কোন অভিযোগ চেয়ারম্যানের দপ্তরে আসেনি। যদি কোন অভিযোগ আসে তাহলে দ্রুত বিষয়টি মীমাংসা করে দিবেন বলে জানান। তিনি আরো জানা তার এলাকায় এ সমস্ত অন্যায়, অত্যাচার কেউ পার পাবে না। এমনকি বিচারের রায় যদি কেহ অমান্য করে তাহলে তাদেরকে আইনের কাছে সোপর্দ করবেন বলেও জানান।

Top