জগন্নাথপুরে এক মহিলা সনাতন ধর্ম ত্যাগ করে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেছেন

27661928_1859242777439794_1043153863_n.jpg

জুয়েল আহমদ,জগন্নাথপুর(সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধি::
সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরের রানীগঞ্জ ইউনিয়নে রৌয়াইল গ্রামের দিবানন্দ কুমার দাসের স্ত্রী প্রীতী রানী দাস আজ সোমবার সিলেট জজকোর্টে গিয়ে হলফনামার মাধ্যমে ইসলাম ধর্ম গ্রহন করেছেন।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করা মহিলা পেশায় এক জন শিক্ষিকা তিনি ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করার জন্য স্থানীয় রৌয়াইল বাজার জামে সমজিদের ইমামের সামনে গিয়ে ইসলাম ধর্মের পাঁচটি কালেমা পাঠ করিয়া সনাতন ধর্ম থেকে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেন। পূর্বের নাম ছিল প্রীতী রানী দাস বর্তমান নাম ফাতেমাতুজ জহুরা।
হলফনামায় ফাতেমাতুজ জহুরা বলেন আমি একজন পূর্ণ বয়স্ক মহিলা আমার ইসলাম ধর্মের অনেক বন্ধু বান্ধব রয়েছে। তাহাদের সাথে প্রায় সময় ওয়াজ মাহফিল সহ বিভিন্ন ইসলামী অনুষ্টানে অংশ গ্রহণ করি। বুজতে পারি ইসলাম একটি শান্তির ধর্ম ইহকাল ও পরকালের জন্য মুসলাম হওয়া জরুরি তাই আমি ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করি।
তিনি আরো বলেন পৃথিবীতে অনেক ধর্ম বিদ্যমান রয়েছে। এগুলোর মধ্যে ইসলামই হ’ল সঠিক ও সত্য ধর্ম বাকী সব বাতিল। পৃথিবীতে যত নবী এসেছেন সকলেই ইসলামের ওপর প্রতিষ্ঠিত ছিলেন। কিন্তু পরবর্তীতে শয়তানের প্ররোচনায় বিভিন্ন ধর্ম ও মতের আবির্ভাব ঘটে।ইসলাম এমন একটি ধর্ম যে ধর্ম সবার শান্তি কামনা করে। কোনো ধর্মের ওপর আঘাত করার শিক্ষা ইসলামে নেই। বিশ্ব নিয়ন্ত্রণকর্তা সব সময়ই মানুষকে শান্তির দিকে আহ্বান করে থাকেন।
ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করায় স্থানীয় মসজিদের সকল মুসুল্লী ও গ্রামের সকল মুসলমানগন তাকে স্বাগত জানান এবং সকল সহযোগিতার আশ্বাস দেন।

Top