শিক্ষার্থীদের মেধা ও মননকে কাজে লাগিয়ে মানুষের সেবার মধ্যে দিয়ে এগিয়ে যেতে হবে

27044489_2022311988012253_608723857_n.png

সিলেট প্রতিনিধি :
নার্সিং পেশা একটি মহৎ পেশা। জীবন মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে আপনজনের মতো পাশে থেকে মানুষকে সুস্থ করে তুলেন তিনি হচ্ছেন একজন নার্স। তাই এই পেশার সাথে সংশ্লিষ্টদেরকে এই মহৎ পেশার গুরুত্ব উপলদ্ধি করে নিজেদের জীবন পরিচালনা করতে হবে। তাইলে নিজের জীবন উন্নতির পাশাপাশি প্রতিষ্ঠানেরও সুনাম উজ্জ্বল হবে, মানুষও উপকৃত হবে। মনে রাখতে হবে রোগির কঠিন সময়ে যে পাশে থাকে সে হচ্ছে সেবক-সেবিকা।
সিলেট উইমেন্স নার্সিং ইনস্টিটিউটের বার্ষিক পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে হলি সিলেট হোল্ডিং লিমিটেডের সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান প্রফেসর ডা. এম.এ. মতিন একথা বলেন। সিলেট উইমেন্স মেডিকেল কলেজের হল রুমে সিলেট উইমেন্স নার্সিং ইনস্টিটিউটের অধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. নীলিমা মজিদের সভাপতিত্বে ও রেকসনা জামানের পরিচালনায় বৃহস্পতিবার অনুষ্ঠিত সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, সিলেট উইমেন্স মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ, অধ্যাপক ডাঃ মোঃ রেজাউল করিম, হলি সিলেট হোল্ডিং লি: এর ভাইস-চেয়ারম্যান মোঃ ফখরুল ইসলাম, নার্সিং কোর্সে ছাত্র/ছাত্রী ভর্তি ও নার্সিং কলেজ বাস্তবায়ন কমিটির আহবায়ক অধ্যাপক ডাঃ মোঃ আজির উদ্দিন আহমদ, হলি সিলেট হোল্ডিং লি: ব্যবস্থাপনা পরিচালক ডাঃ মোঃ শাহ আব্দুল আহাদ, সিলেট উইমেন্স মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক লেঃ কর্ণেল (অবঃ) ডা. সৈয়দ আবতহী প্রমুখ।
সভার শুরুতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন, ইনষ্টিটিউটের সাবিনা ইয়াসমিন। অনুষ্ঠানের শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন, আমিনুল এহসান।
সভায় বক্তারা আরো বলেন, লেখাপড়ার পাশাপাশি খেলাধুলা অত্যন্ত জরুরী। খেলাধুলা প্রতিযোগিতামুলক মনোভাব সৃস্টিতে অনুপ্রেরনা যোগায়। প্রতিহিংসা নয় প্রতিযোগিতার মাধ্যমে এগিয়ে যেতে হবে।

Top