সুনামগঞ্জ নদী খননের কাজ ও হাওর রক্ষা বাঁধ মোরমত তদারকীর জন্য সেনাবাহিনী নিয়োগ দাবী

received_111452996331729.jpeg

আব্দুল জলিল মিয়া, সুনামগঞ্জ সদর (প্রতিনিধি) :
সুনামগঞ্জ নদী খননের জন্য বিশেষ প্রকল্পে হাওর রক্ষা বাঁধ মেরমত তদারকীর জন্য সেনাবাহিনী চান ডা: রফিক চৌধুরী
সুনামগঞ্জ জেলা বিএনপির সাবেক সাধারন সম্পাদক ও কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটি সদস্য সুনামগঞ্জ-১ আসনের গত নবম সংসদ নির্বাচনে ধানের শীষ প্রার্থী অধ্যাপক ডা: রফিকুল ইসলাম চৌধুরী অবিলম্বে হাওর রক্ষা বাঁধ মেরামত তদারকীর জন্য সেনাবাহিনী নিয়োগ ও হাওর অঞ্চলের নদী খননের জন্য জরুরী ভিত্তিতে বিশেষ প্রকল্প হিসেবে ৫হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ দেওয়ার জন্য সরকারে প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।
তিনি বলেন, গাড়ীতে পারাপারের জন্য ৪০ হাজার কোটি টাকার পদ্মা সেতু নিয়ে সরকার বুক ফুলিয়ে গর্ব করেন, আমাদেরকে ৬হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ করে এক কোটি লোকের বাসস্থান হাওর সভ্যতাকে বাচিয়ে আরো বেশী গর্ব করতে পারেন সরকার।
হাওরবাসীর বিপদ গভীর থেকে গভীর হচ্ছে, সমাধানের কথা ভাবা জরুরী। এ ব্যাপারে সবার দৃষ্টি আকর্ষন করছি।
তিনি আরো বলেন, অকাল বন্যার আশংখা এজন্য ডুবন্ত বাঁধ তত্ত্বে ক্লোজার এবং আফর মেরামত হচ্ছে। এতে হাওরবাসীর ফসল রক্ষা হবে কিনা তার নিশ্চয়তা কোথায়? এবার বড় সমস্যা হয়ে আছে জলাবদ্ধতা, জলাবদ্ধতার কারনে ফসল বোনার কাজই এক মাস পিছিয়েছে। তাই ধান পাকাও একমাস পিছাবে ঐ সময়তো মৌসুমী বন্যায়ই হাওরই তলিয়ে যাবে। এবারে হাওর রক্ষার প্রধান বিপদ জনদাবী উপেক্ষা করে দলীয় পিআইসি গঠন, স্বেচ্ছাচারিতা ও দুর্নীতি বাঁধ নির্মানের ছেয়ে অধিকতর প্রাধান্য পাবে এ বিষয়ে কৃষক সমাজকে সতর্ক থাকতে হবে। বন্যা নিয়ন্ত্রনের দীর্ঘ মেয়াদী পরিকল্পনায় কেউই নজর দিচ্ছেন না, সুরমা কোশিয়ারা অঞ্চলে বন্যা নিয়ন্ত্রনের প্রচুর গবেষনা আছে। ফ্যাপ-৬, ফাও এর রিপোর্ট, পানি উন্নয়ন মন্ত্রনালয়ের গবেষনা রিপোর্ সর্বশেষ হাওর মাষ্টার প্ল্যান কোনটারই সরকারী নাড়াচাড়া দেখছি না কেন?
আমরা হাওর বাসী আর হাওর সভ্যতা কি বিলীন হয়ে যাবে? সুরমা কোশিয়ারার মিলন স্থল চান্দোপাড় থেকে মেঘনা নদী কয়েক মাইল খনন না করলে আমাদের জলাবদ্ধতার বিপ দূর হবেনা কিন্তু এটা তো দীর্ঘ মেয়াদী বন্যা নিয়ন্ত্রনের অংশ। তত্ত্বের ঝগড়ার দ্রুত সমাধান হওয়া দরকার। ইসিএ ডুবন্ত বাঁধতত্ত্ব বাইডাইভারসিটি, হাওর ডেফিনেশন, পরিবেশ ইউটেলিটি, পরিবেশ প্রতিবেশ ধারনা এই সকল তত্ত্বের বেড়াজালে সরকার বিভ্রান্ত হন। এ সবে বিভ্রান্ত না হয়ে হাওরবাসীর স্থায়ী সমাধানের জন্য তিনি সরকারের সু-দৃষ্টি কামনা করেন এবং এ দাবিতে আন্দোলন গড়ে তুলার জন্য হাওরবাসীর প্রতি আহ্বান জানান ডা: রফিকুল ইসলাম চৌধুরী।

Top