ইসলামাবাদে মন্দিরে চুরি ও ভাংচুরের অভিযোগ,প্রশাসনের পরিদর্শণ

received_2018295435114554.jpeg

মিছবাহ উদ্দিন, ঈদগাঁও#

সদরের ইসলামাবাদে শ্মশানে চুরি ও ভাংচুরের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ১২ জানুয়ারী গভীর রাতে এ ঘটনাটি ঘটেছে বলে যানাযায়। তবে কে বা কারা ঘটিয়েছে এখনো তথ্য পাওয়া যায়নি। এদিকে স্থানীয়দের ধারণা এলাকার মাদকাসক্ত বখাটেরাই এই ধরনের কাজ করতে পারে। খবর পেয়ে প্রশাসনের উর্দ্ধতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। সরেজমিন এলাকাবাসীর সাথে কথা বলে জানা যায়,এ দিন রাতে শ্মাশনস্থ মন্দিরের পূজারীরা ধর্মীয় কাজ শেষ করে বাড়ি ফিরে যায়। এ সময় কে বা কারা মন্দিরে প্রবেশ করে প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র লুটপাট করে নিয়ে যায় এবং শীব মূর্তির একাংশ ভেঙ্গে দেয় দূর্বৃত্বরা।সকালে পূজারীরা পূজা করতে গিয়ে বিষয়টি দেখতে পায় সনাতন সম্প্রাদায়ের লোকজন।তাৎক্ষনিক স্থানীয় চেয়ারম্যানকে অবহিত করা হলে তিনি ঘটনাস্থল পরির্দশন করে পুলিশকে জানায়। কক্সবাজারের অতিরিক্ত পুলিশ আফরুজুল হক টুটুল, সদর রামু সার্কেল রুহুল কুদ্দুস,সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ নোমান হোসেন, ট্রাস্টি চন্দন শর্মা, ওসি রনজিত কুমার বড়ুয়া,আইসি মিনহাজ মাহমুদ ভুঁইয়া,চেয়ারম্যান নুর ছিদ্দিক প্রমুখ।এদিকে এ ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চ্যলের সৃষ্টি হয়েছে।স্থানীয়দের ধারনা মাদক সেবীরা এ কাজে জড়িত থাকতে পারে। চেয়ারম্যান নুর ছিদ্দিক ঘটনার সত্যাতা স্বীকার করে বলেন মাদক সেবীরা মাতলামি করে এ ঘটনা ঘটিয়েছে বলে ধারনা করা হচ্ছে।এমইউপি সাইফুল ইসলাম ও ঘটনার সত্যাতা নিশ্চিত করেন।মন্দির কমিটির সভাপতি শুকলাল দে জানান, দুর্বত্বদের বিরুদ্ধে মামলা প্রক্রিয়া চলছে।

Top