কুতুবদিয়ায় হাঁতুড়ির আঘাতে বৃদ্ধ শশুরের দাঁত ফেলে দিল জামাই!

8.jpg

এম.নজরুল ইসলাম,কুতুবদিয়া :

গতকাল বৃহস্পতিবার (০৭ ডিসেম্বর) সকালে উপজেলার দক্ষিণ ধুরুং ইউনিয়নের করিম সিকদার পাড়া এলাকায় শশুর বাড়িতে পারিবারিক ঘটনার রেশ তোলে বৃদ্ধ শশুর মৌলভী বদিউল আলম (৭৫) কে হাঁতুড়ি দিয়ে পিটিয়েছে আপন মেয়ে জামাই মইনুল হাছান। জামাইয়ের হাঁতুড়ি পিটুনিতে শশুরের চারটি দাঁত ঘটনাস্থলে পড়ে গেছে বলে জানিয়েছে স্থানীয়রা।
তবে হাসাপাতাল সূত্র জানায় আরো কয়েকটি দাঁত গুরুতর জখম হয়েছে। রোগীর অবস্থা আশংকাজনক দেখে কর্তব্যরত চিকিৎসক উন্নত চিকিৎসার জন্য রোগীকে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে প্রেরণ করেছেন। পরে ঘটনার খবর পেয়ে এস.আই বদিউল আলমের নেতৃত্বে কুতুবদিয়া থানার একদল পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে জামাইকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে ।
এঘটনায় বৃদ্ধ বদিউল আমের মেয়ে মর্জিনা সোলতানা বাদী হয়ে স্বামী মইনুল হাছানের বিরুদ্ধে কুতুবদিয়া থানায় এজাহার দায়ের করেছেন বলে নিশ্চিত করেন কুতুবদিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মুহাম্মদ দিদারুল ফেরদাউস ।
প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে প্রকাশ, বিগত দুই বছর পূর্বে উপজেলার বড়ঘোপ ইউনিয়নের মৌলভী বাড়ীর মোয়াজ্জেম হোসেনের ছেলে মইনুল হাছানের সাথে দক্ষিণ ধুরুং ইউনিয়নের করিম সিকদার পাড়ার মৌলভী বদিউল আলমের মেয়ে মর্জিনা সোলতানার আনুষ্ঠানিক বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে মেয়ে
জামাই মইনুল হাছান মেয়ে মর্জিনাকে বিভিন্নভাবে নির্যাতন করতে থাকলে মর্জিনার পরিবার তা অবগত হয়। বিগত কয়েক মাস পূর্বে মেয়েকে
শশুর বাড়ি থেকে নিজের বাড়িতে নিয়ে আসে মৌলভী বদিউল আলম। গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে মেয়ে জামাই মইনুল শশুর বাড়িতে গিয়ে স্ত্রী
মর্জিনাকে হাঁকাবঁকা করে মারধর করলে মর্জিনার পিতা মৌলভী বদিউল আলম (৭৫) বাঁধা দেয়। এতে জামাই মইনুল ক্ষিপ্ত হয়ে তাকেও লোহার

হাঁতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে মুখে আঘাত করলে ৪টি দাঁত ঘটনাস্থলে পড়ে যায়। আহতদের চিৎকারে প্রতিবেশী ও প্রত্যক্ষদর্শীরা ঘটনাস্থল এসে মৌলভী বদিউল আলমকে উদ্ধার করে কুতুবদিয়া সরকারি হাসপাতালে ভর্তি করে।

Top