কিভাবে অপরের ভালোবাসা পেতে পারেন?

images-2-1.jpg

হামিদ হোসাইন মাহদী :

আপনি কাউকে আপনার ব্যক্তিগত বা সামষ্টিক কোনো কাজ কাজ করার অনুরোধ বা আদেশ করলেন। অতঃপর সে মনোযোগের সহিত তা সম্পন্ন করলো। তাকে একটা ধন্যবাদ জানান। দেখবেন পরবর্তীতে আবার কিছু করার অনুরোধ করলে সে কখনো বিরক্তবোধ করবে না। বরঞ্চ সে নিজেকে গর্ববোধ করবে। হোক সেটা আপনার আপন কোনো ভাই। ছোটদেরকে ধন্যবাদ দিলে তারা আরো যে কোনো কাজ করতে উৎসাহিত হয়।
.
অথবা মনে করুন আপনি একজন শিক্ষক। আপনার ছাত্রকে একটা কাজ করার জন্য বললেন। সে কিন্তু কখনো ‘না’ করবে না। যদি তাকেও একটা ধন্যবাদ দিতে পারেন, সে অন্য বন্ধুদের কাছে গিয়ে বলবে, অমুক স্যারটা সত্যি অনেক ভালো।
.
আসলেই এমন কিছু ছোটখাটো জিনিস আছে, যা নিজের মধ্যে লালন করতে পারলেই সহজেই কারো ভালোবাসার মানুষ হওয়া যায়। এ জায়গায় একটা জিনিস মনে রাখা উচিত, নিজেকে সর্বদা ছোট ভাবা। অন্যের কাছ থেকে ভালোবাসা আশা না করে, নিজের ভালোবাসা আগে উজাড় করে দেয়া।
.
দার্শনিক কার্লাইল বলেছিলেন, “একজন মহৎ ব্যক্তির মহত্ত্ব বুঝা যায় ছোটদের সাথে তার ব্যবহার দেখেই।” কখনো কাউকে আদেশ করতে যাবেন না। প্রত্যেকের কাছে ‘অর্ডার’ শব্দটা নিন্দিত। অনুরোধ করুন, আর আগে বা পরে ‘প্লিজ’ শব্দটা বলুন। দেখবেন হাজারবার বললেও যে কেউ আপনার কোনো কাজ আঞ্জাম দিতে কুণ্ঠাবোধ করবে না।
.
আমাদের প্রিয় নবি (সঃ) এর পালক পুত্র ছিলেন হযরত যায়েদ (রাঃ)। একদিন তার পিতামাতা তাকে নিয়ে যাওয়ার জন্য রাসূল (সঃ) এর দরবারে আসলেন। ছোট্ট যায়েদ সরাসরি যাবো না বলে সায় দিলেন। এমন কী আদর স্নেহ পেয়েছিলেন সে! একটু ভেবে দেখুন। হযরত আনাস (রাঃ) দীর্ঘ ১০ বছর রাসূল (সঃ) এর সেবক হিসেবে ছিলেন। কখনো তার সাথে তিনি ধমকের সহিত কথা বলেননি। তা আনাস (রাঃ) নিজ মুখেই বলেছেন। আর নিজে কখনো রাসূল (সঃ) কে আগে সালাম দিতে পারেননি।
.
আমাদের গোলাম ও মালিকের সম্পর্কটাও যদি এমন হতো! আজকাল দেখা যায়, অফিসের কর্মচারীদের সাথে বসের Misbehave বা অসদাচরণ। কর্মচারীটা বসের অগোচরে তার অন্য কলিগদের বলে, আমার বসটা জানোয়ারের চেয়েও খারাপ। আপনি আপনার অধীনস্থদের কাছে খারাপ থাকা মানে স্ত্রী ও সন্তানদের কাছেও খারাপ থাকা। জাতি গঠনের আগে নিজেকে গঠন করা উচিত।
.
রাসূল (সঃ) এর কাছে একজন সাহাবি প্রশ্ন করলেন, হে আল্লাহর রাসূল (সঃ)! আমি একজন মুমিন সেটা কিভাবে বুঝব? তিনি বললেন, ‘তোমার নিকটস্থ প্রতিবেশী যদি তোমাকে সৎ সার্টিফিকেট দেয়, মনে করবে তুমি একজন মুমিন।’
.
আসুন, আমরা আমাদের অধীনস্থদের সাথে সুন্দর ও মার্জিত ভাষায় কথা বলি। মাঝেমাঝে তাদেরকেও আমাদের নাস্তার আসরে শামিল করি। রাগকে সংবরণ করি। অন্যের দোষত্রুটি খোঁজে বের করার পূর্বে নিজেদের মাঝে আছে কিনা দেখে নিই। মানুষ মারা যায়, তবে রেখে যায় তার স্মৃতি। একটা প্রবাদ বাক্য দিয়েই শেষ করছি,
“A tree is known by its fruits.” অর্থাৎ “গাছ তার ফলে পরিচয়”।
.

Top