কমতে শুরু করেছে চাল ও পেয়াজের দাম

1.jpg

মোঃশহিদুল ইসলাম সুমন
ষ্টাফ রিপোর্টার, চট্টগ্রাম।
সরবরাহ বাড়ায় চাল ও পেঁয়াজের দাম কমতে শুরু করেছে দেশের বিভিন্ন পাইকারি বাজারে। এর প্রভাব পড়েছে খুচরা বাজারেও। এলাকা ভেদে চালের দাম কমেছে প্রতি কেজি দু থেকে ১০ টাকা পর্যন্ত। আর পেঁয়াজের দাম কমেছে কেজিতে সর্বোচ্চ ৪ থেকে ৫ টাকা। ব্যবসায়ী বলছেন, নতুন পেঁয়াজ উঠলে দাম আরো কমবে।

চট্টগ্রামের খাতুনগঞ্জে ১০ দিনের ব্যবধানে চালের দাম বস্তা প্রতি কমেছে ৪০০ টাকা পর্যন্ত। খুচরা বাজারে প্রকারভেদে প্রতিকেজি বিক্রি হচ্ছে ২ থেকে ৮ টাকা কমে। পেঁয়াজের দামও পড়তে শুরু করেছে। এক সপ্তাহের ব্যবধানে খুচরা পর্যায়ে কেজিতে প্রায় ৪ টাকা কমে বিক্রি হচ্ছে পণ্যটি।

খাতুনগন্জ ব্যবসায়ীদের সাথে কথা বললে তারা বলেন, উত্তরাঞ্চলে আমন ধান কাটা শুরু হওয়ার পর থেকেই চালের দাম কমছে। বগুড়ার বাজারে মান ও প্রকারভেদে কেজিপ্রতি কমেছে ২ থেকে ৭ টাকা পর্যন্ত। একই জেলায় সপ্তাহের ব্যবধানে পাইকারি পর্যায়ে দেশি পেঁয়াজের দাম কমেছে গড়ে ১০ টাকা।

দেশে সবচেয়ে বড় স্থল বন্দর বেনাপোলেও আমাদনি বেড়েছে চালের। এছাড়া স্থানীয় আউশ ধানও বাজারে এসেছে। এ অঞ্চলে সপ্তাহের ব্যবধানে চিকন চালের দাম কমেছে ৪ থেকে ৫ টাকা। আর মোটা চাল বিক্রি হচ্ছে ৩৬ থেকে ৩৮ টাকা দরে।

হিলি স্থলবন্দরে পেঁয়াজের আমদানি বাড়ায় ১৫ দিনের ব্যবধানে কেজিতে দাম কমেছে ১৫ থেকে ১৬ টাকা। ব্যবসায়ীরা বলছেন দু-চার দিনের মধ্যে পেঁয়াজের দাম আরো কমে আসবে।

এক সপ্তাহের ব্যবধানে চাল ও পেঁয়াজের দাম কমেছে সাতক্ষীরার বাজারেও। বিক্রি হচ্ছে কেজিপ্রতি ৩ থেকে ৪ টাকা কমে। ভারত থেকে আমদানি মূল্য কমে যাওয়ায় এবং যথাযথ নজরদারির কারণে কমেছে চাল ও পেঁয়াজের দাম বলছেন ক্রেতা-ব্যবসায়ীরা।

Top