পত্নীতলা উপজেলার ঐতিহাসিক দিবর দীঘি বিলুপ্তীর পথে

News-pic.jpg

মেহেদী হাসান,পত্নীতলা(নওগাঁ)প্রতিনিধি:
নওগাঁ জেলা পত্নীতলা উপজেলার ঐতিহাসিক দিবর দীঘির পয্যটক এখন বিলুপ্তীর পথে। সঠিক উদ্দ্যোগ নিলে দেশের অন্যতম পয্যটক কেন্দ্রে পরিণত হতে পারে। ঐতিহাসিক দিবর দীঘির বরেন্দ্র ভূমি পত্নীতলা উপজেলার দিবর ইউনিয়নের ধীবর নামক গ্রামে অবস্থিত। প্রচীন স্থাপত্য পুরাকির্তীর অনুপম নির্দশন স্থাপিত রয়েছে এই ঐতিহাসিক দিবর দীঘিতে। দিনে প্রায় শত শত লোকের আগমন ঘটে এই ঐতিহাসিক দিবর দীঘিতে। অনেক গল্পকাহিনী ও কাল্পনিক কথা প্রচলিত আছে এই দিবর দীঘিটিকে ঘিরে। স্থানীয় ব্যক্তিদের মতে জৈনক বিষু কর্মা নামক এক বীর র্কতৃক এক রাতের মধ্যে এই বিশাল আকৃতির দীঘিটিকে খনন কারে। ইতিহাস থেকে জানা যায়, ঐতিহাসিক দিবর দীঘিতে স্থাপিত প্রাচীন স্থাপত্য জলাশয়ের মাঝখানে অবস্থিত ৤ স্থম্ভটি একাদশ শতাব্দীর রাজা দিব্যক তার ভ্রাতা রুদ্যোকের পুত্র ভীমের র্কিতী হিসাবে পরিচিত। স্থম্ভটিতে মূল্যবান কিছু আছে বলে জানা যায়। আরও জানা যায়, প্রায় লোক ঐতিহাসিক দিবর দীঘিতে ডুবে মারা যায়। বর্তমানে এই দীঘির জলাশয়ের পরিমাণ প্রায় ২০ একর। এই জলাশয়ের সব টুকু সমপত্তি সরকারী হিসাবে বজায় আছে। দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে মানুষের আগমন ঘটে এই ঐতিহাসিক দিবর দীঘিতে। কিন্তু এখন ঐতিহাসিক দিবর দীঘিতে দিনে দিনে পয্যটক কমে যাচ্ছে। এখানে প্রায় প্রতিদিন বনভোজনরে ও ভ্রমনের উদ্দেশ্যে শত শত মানুষের আগমন ঘটত। এখন হাজারো মানুষের দাবি হাজার বছরের বাংলা ও বাঙ্গালীর সৌর্য্য বীর্যের প্রতীক ঐতিহাসিক দিবর দীঘিকে দেশের অন্যতম পর্যটক কেন্দ্র হিসাবে গড়ে তোলা হোক। এতে সরকারের যেমন রাজস্য বাড়বে তেমনি এলাকার মানুষও পাবে সারাবছর নির্মল বিনোদনের মাধ্যম।

Top