“কক্সবাজার ৬নং ঘাটে মালামালের উপর অনিয়ন্ত্রিত টোল অাদায় বন্ধ হোক”

FB_IMG_1543810967393.jpg

এস. এম. রুবেলঃ
– মহেশখালী-কক্সবাজার জেটিঘাট অামরা দ্বীপবাসীর চলাচলের অন্যতম নদীপথ। এ নদীপথে প্রতিদিন দেশী-বিদেশী পর্যটক সহ হাজারো স্থানীয় জনসাধারণ পারাপার করে থাকেন। বিভিন্ন সময় বিভিন্ন কারণে ঘাট পরিচালনা কর্তৃপক্ষ ও বোট চালকদের হাতে অনেক যাত্রীদের লাঞ্চনার শিকার হতে হয়।

– তবে অনেকদিন পর সুখবর পেলাম। যাত্রীদের সুবিধার্থে নীতিমালা সম্বলিত কক্সবাজার জেলা প্রশাসন এর উদ্যোগে প্রচারপত্র ছাপানো হয়েছে। উদ্যোগটি সত্যিই প্রশংসনীয়।

– তবে অারো একটি গুরুত্বপূর্ণ নিয়ম অজ্ঞাত কারণে বাদ পড়ে গেছে। প্রতিদিন হাজারো যাত্রী কক্সবাজারস্থ ৬নং ঘাটে টোল অাদায়কারীদের হাতে লাঞ্চনার শিকার হয়। জনপ্রতি ৫টাকা টোল অাদায়ের পাশাপাশি যাত্রীর সাথে থাকা মালামালের উপর অনিয়ন্ত্রিত নিয়মবহির্ভূত টাকা অাদায় করে। কোন যাত্রীর কাছে স্বাভাবিকের চেয়ে একটু বড় ব্যাগ কিংবা পলি থাকলেই বিপদ। কর্তৃপক্ষের নিয়োজিত লোকদের মালামালের উপর টাকা দিতেই হবে। টাকা দিতে অপারগতা প্রকাশ করলে কিংবা কম দিতে চাইলে যাত্রীদের সাথে খারাপ অাচরণ করা হয়। যা প্রতিনিয়ন সবাই দেখে অাসছে। দীর্ঘদিন থেকে চলে অাসা এই অশুভ অনিয়মটি যদি সঠিক নিয়মে পরিণত করা যায় তবে পর্যটক সহ জনসাধারণ উপকৃত হবে। মালামালের পরিমান অনুযায়ী টোল নির্ধারণ পূর্বক প্রচারপত্র প্রকাশ করলে দুর্নীতি মুক্ত হবে কক্সবাজার ও মহেশখালী জেটিঘাট।

Top