জগন্নাথপুরে জায়গা নিয়ে উত্তেজনা, সংঘর্ষের আশঙ্কা

download-5-2.jpg

জগন্নাথপুর প্রতিনিধি :
সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরে বাড়ির জায়গার মালিকানা নিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে। এ নিয়ে যে কোন সময় বড় ধরণের সংঘর্ষের আশঙ্কা রয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে জগন্নাথপুর উপজেলার মিরপুর ইউনিয়নের শ্রীরামসি গ্রামে।
জানাগেছে, বাড়ির জায়গার মালিকানা নিয়ে শ্রীরামসি গ্রামের মৃত ধন মিয়ার ছেলে আহমদ আলী ও একই গ্রামের মৃত তহুর আলীর ছেলে আফিক আলীর মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ ও মামলা-মোকদ্দমা চলছে।
জানাযায়, শ্রীরামসি মৌজার জেল এল নং ১০২, দাগ নং ১৮১৬, খতিয়ান নং ১১৪১ ও ১২৩৮ এ বাড়ি রকম মোট ৩৭ শতক জায়গার মধ্যে ৩৩ শতক জায়গার এসএ মালিক মৃত ধন মিয়া। এর মধ্যে ২২ শতক তিনি মালা বিবিকে রেজিস্ট্রি করে দেন। বাকি ১১ শতাংশ ভূমি দীর্ঘদিন ধরে ভোগ দখলে আছেন মৃত ধন মিয়ার ছেলে আহমদ আলী গং। এর মধ্যে গত প্রায় ২ মাস আগে আহমদ আলী উক্ত ভূমিতে টিনসেড ঘর নির্মাণ করেন। এতে বাধা দেন প্রতিপক্ষের আফিক আলী। এ নিয়ে নতুন করে তারা উভয় পক্ষের মধ্যে বিরোধ সৃষ্টি হয়। এ ঘটনায় প্রতিপক্ষের আফিক আলী বাদী হয়ে সুনামগঞ্জ আদালতে আহমদ আলী গংদের বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করেন। মামলায় উল্লেখ করা হয়, বিরোধীয় ভূমিতে আফিক আলী ঘর নির্মাণ করেন।
অথচ স্থানীয়রা জানান, এখানে আহমদ আলী ঘর নির্মাণ করেছেন। জগন্নাথপুর উপজেলা ভূমি অফিসের সার্ভেয়ার মির্জা নুরে আলমও ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন।
এ ব্যাপারে ভূক্তভোগী আহমদ আলী বলেন, ১৯৮০ সালে আমার পিতা ধন মিয়া আফিক আলীর মাতা মালা বিবিকে ২২ শতক জায়গা রেজিস্ট্রি করে দেন। পরিবর্তে উক্ত মালা বিবি আমার বড় ভাই মাহমদ আলীকে ২১ শতক জায়গা রেজিস্ট্রি করে দেন। তবে মালা বিবির দেয়া ২১ শতক জায়গার মধ্যে ৫ শতক জায়গার মালিক জহুর আলী। এতে তিনি আমাদেরকে ৫ শতক জায়গা কম দিয়েছেন। এছাড়া আমাদের বাড়ি রাস্তাও জালিয়াতি করে তারা নিয়ে গেছে। এখন আমার জায়গায় ঘর তুলতে গেলে মিথ্যা মামলায় ফাসিয়ে হয়রানী করছে। এ ঘটনায় জগন্নাথপুর থানায় জিডিও করেছি। তাতেও কাজ হচ্ছে না। এ ব্যাপারে প্রতিপক্ষের আফিক আলী বলেন, আমাদের খরিদা কমবেশি ২২ শতক জায়গা চাই। বাকি জায়গার উপর আমার কোন আপত্তি নেই। #

Top