“বন্দী খাঁচা” শেষ পর্ব

golpo_home.jpg

জিনাত তামান্না।।

কথার মাঝে সারার মা বললেন __সারা !মা মণি আমার ,,তুমি যখন দরজা বন্দি ছিলে আর আমরা সবাই বাইরে দাড়িয়ে কাঁদছিলাম তখন কি খুব কষ্ট হয়েছিলো তোমার ?
সারা বললো __হ্যা মা !বুশরা আর তোমার কান্না শুনে আমার অনেক বেশি খারাপ লাগছিলো !
মা এবার তার ছোটো মেয়ে বুশরাকে প্রশ্ন করলেন ___বুশরা !তোমার কাছে কেমন লাগছিলো?যখন দেখলে তোমার আপু বের হতে পারছে না ?বুশরা বললো ___আমার চিৎকার দিয়ে কান্না আসছিলো।এভাবে সারার মা তার তিন ভাইকে ও প্রশ্ন করলেন ,তারা তিন জনই বললো ___আমাদের দরজা ভেঙে ফেলতে ইচ্ছে করছিলো ,খুব কষ্ট হচ্ছিলো ইত্যাদি ইত্যাদি।
এবার সারার মা বললেন ___আমার ঠিক সেই পরিমাণ কষ্ট হচ্ছিলো যেই পরিমাণ কষ্ট ঐ মা পাখিটার হচ্ছে।
তারেক ওর আপুর কথা বুঝতে পেরে চুপ হয়ে গেলো।
সারার মা আরো পরিষ্কার করে বুঝিয়ে বললেন ___তোমরা সবাই আমার কথাটা একটু মনোযোগ দিয়ে শোনো,তোমাদের খাঁচায় বন্দি যে বাচ্চা পাখিটা আছে ,ওর মায়ের কাছে আর ওর মতোই ওর বাসায় আরেকটা পাখি আছে সেটার কাছে ,আমাদের সবার মতোই কষ্ট হচ্ছে তাই না ?বোনের কথাগুলো শুনে তারেক বললো __চলো ,আমরা ওকে ওর বাসায় পৌঁছে দিয়ে আসি।
এরপর সবাই একমত হয়ে ,নাস্তা শেষ করে , খাঁচায় বন্দি সেই পাখির বাচ্চাটিকে তার মায়ের কাছে দিয়ে আসলো।

Top