দবির উদ্দিন এলএলবির নমিনেশন দাখিল

46056236_195788848009941_8003379502614839296_n.png

(মুক্তমত) —(কাল্পনিক চরিত্র অবলম্বনে)

দলীয় নমিনেশন দাখিল করতে এসেছেন দবির উদ্দিন এলএলবি,এলএলএম।তার এলএলবি,এলএলএম ডিগ্রী কোন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে করা তা কেউ নিশ্চিত করে বলতে পারে না।
অনেকদিন দেশের বাহিরে ছিলেন দবির উদ্দিন এলএলবি। দেশে এসে বেশ কিছু ব্যবসায় বিনিয়োগ করে রাতারাতি আঙ্গুল ফুলে কলাগাছ বনে গেছেন।স্থানীয় রাজনীতিতেও দখল করে নিয়েছেন শক্ত অবস্থান।শোনা যায়,স্থানীয় মাদক সাম্রাজ্য তার আঙ্গুলের ইশারায় চলে কিন্তু তা তিনি স্বীকার করতে মারাত্মক নারাজ।তার বিরুদ্ধে একাধিক ধর্ষণের মামলাও আছে,আছে জোরপূর্বক জমি দখলের অভিযোগ।তার প্রতিপত্তি দেখে স্থানীয় সরকারি অফিসাররাও তাকে ‘স্যার’বলে সম্বোধন করেন।তার বেশকিছু ইটভাটা আছে।পরিবেশ অধিদপ্তর থেকে একাধিকবার পরিবেশ বান্ধব ইটভাটা নির্মানের জন্য নোটিশ পাঠানো হলেও তিনি বিশেষ পদ্ধতিতে অধিদপ্তরের কর্মকর্তাদের হ্যান্ডেল করে বহাল তবিয়তে তার ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছেন। সমাজসেবায় বিশেষ অবদানের জন্য একাধিক পুরষ্কার আছে তার থলিতে।কিন্তু কেউ জানে না সমাজের কোন ক্ষেত্রে অবদানের জন্য তাকে পুরষ্কারে ভূষিত করা হয়েছে।
প্রশিক্ষিত একদল গুণ্ডা বাহিনীও আছে তার,উক্ত বাহিনীর প্রধানের নামে ডজনখানিক খুনের মামলা আছে বিভিন্ন থানায়।
দবির উদ্দিন এলএলবি বিশাল বহর নিয়ে এসেছেন নমিনেশন পেপার দাখিল করতে।দুইটা বড় বাস,পাঁচটা মাইক্রো বাস ভরতি করে তিনি মানুষজন নিয়ে এসেছেন। ঢাকার বিভিন্ন কলেজ,বিশ্ববিদ্যালয় থেকেও লোক সংগ্রহ করা হয়েছে।ভাড়ায় কিছু টোকায় এবং শ্রমজীবী লোকও সংগ্রহ করেছেন তিনি।যদিও তার বহরের বেশির ভাগ লোকই ভাড়া করা।
ও হ্যাঁ,তিনি সাথে করে ব্যান্ড পার্টিও নিয়ে এসেছেন।
তার বহর নামার সাথে সাথেই পার্টি অফিসের আশেপাশের বিভিন্ন রাস্তায় শুরু হয়ে গেছে তীব্র জানজট।দুইটা এ্যাম্বুলেন্স সাইরেন থামিয়ে সটান দাড়িয়ে আছে।এ্যাম্বুলেন্সের গ্লাস খুলে শুকনো মুখে,হতাশ চোখে তাকিয়ে আছে খোঁচা খোঁচা দাড়িওয়ালা একজন মধ্যবয়স্ক লোক।ভেতর থেকে ক্ষীণ কান্নার আওয়াজ আসছে।রিকশাচালকরা নির্বাক দৃষ্টিতে বিশাল বহর অবলোকন করছেন।রিকশায় বসা দুইজন মধ্যবয়স্ক মহিলা মুখে ওড়না চেপে বিরুক্তির চোখে তাকিয়ে আছেন।
মিছিলের বহর থেকে উচ্চরবে ভেসে আসছে বিভিন্ন স্লোগান,”তোমার ভাই,আমার ভাই,দবির ভাই দবির ভাই।যোগ্য নেতা দবির ভাই,আমরা সবাই তাকে চাই”।সবার হাতে একটা করে ফেস্টুন,ফেস্টুনে দবিরউদ্দিন এলএলবির বড় করে ছবি,উপরে ছোট করে পার্টি প্রধান এবং দেশের স্থপতির ছবি।ঠেলাঠেলির প্রচণ্ড চাপে কিছু ফেস্টুন পড়ে গেছে পিচঢালা রাস্তায়,পায়ের নিচে পিস্ট হচ্ছে দবির উদ্দিন এলএলবিসহ পার্টি প্রধান এবং স্থপতির ছবি।
ব্যান্ড পার্টি “জয় বাংলা,বাংলার জয়” গানের সুরে ব্যান্ড বাজাচ্ছে।জ্যামে আটকে পড়া রিকশায় বসা পাঁচ বছরের স্কুল ব্যাগ,উইনিফর্ম পরা একটা শিশু ব্যান্ডের সুরে সুর মিলিয়ে গাইছে,”জয় বাংলা,বাংলার জয়”।
হাত নাড়াতে নাড়াতে স্বগর্বে পার্টি অফিসের দিকে যাচ্ছেন দবির উদ্দিন এলএলবি…

(চরিত্রটি কাল্পনিক কিন্তু এ ধরণের দবির উদ্দিন এলএলবিরাই আদর্শিক নেতাদের বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে দখল করে ফেলেন ক্ষমতার মসনদ।)

মুক্তার আহমেদ ,
শিক্ষার্থী ,দর্শন বিভাগ ,ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়

Top