টেকনাফে বন্দুকযুদ্ধে ইয়াবা ব্যবসায়ী নিহত : অস্ত্র,গুলি ও ইয়াবা উদ্ধার।। ৩ পুলিশ সদস্য আহত

received_745786219103215.jpeg

আবদুর রাজ্জাক,কক্সবাজার জেলা প্রতিনিধি।।

কক্সবাজারের টেকনাফে কথিত বন্দুক যুদ্ধে
জিয়াউল বশির শাহীন ওরফে শহীদ (৩২) নামের তালিকাভূক্ত আরো এক ইয়াবা ব্যবসায়ী নিহত হয়েছে। পুলিশ ঘটনাস্হল থেকে উক্ত ইয়াবা ব্যবসায়ীর লাশ, ৩টি দেশীয় তৈরী অস্ত্র, ১৮ রাউন্ড গুলি, ১৩টি গুলির খোসা ও ১৫ হাজার পিস ইয়াবা বড়ি উদ্ধার করে। শনিবার (১০ নভেম্বর) ভোর রাত আড়াইটার দিকে টেকনাফ উপজেলার হ্নীলা দরগা পাড়া সংলগ্ন আশ্রয় কেন্দ্র এলাকায় এই বন্দুক যুদ্ধের ঘটনাটি ঘটে।
নিহত ইয়াবা ব্যবসায়ী শহীদ টেকনাফ উপজেলার হ্নীলা ইউনিয়নের পশ্চিম সিকদার পাড়ার ছৈয়দ আহমদ ছৈয়তুর পুত্র বলে জানা গেছে। এই ঘটনায় পুলিশের ৩ সদস্য আহত হয়েছে।
জানা যায়, শনিবার (১০ নভেম্বর) ভোর রাত আড়াইটার দিকে উপজেলার হ্নীলা দরগা পাড়া সংলগ্ন আশ্রয় কেন্দ্র এলাকায় দুই ইয়াবা ব্যবসায়ী গ্রুপের মধ্যে বন্দুক যুদ্ধের খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছলে ইয়াবা ব্যবসায়ীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছুড়লে
পুলিশও আত্নরক্ষার্থে পাল্টা গুলি চালালে ইয়াবা ব্যবসায়ীরা পিছু হঠে পালিয়ে গেলে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে তালিকাভূক্ত ইয়াবা ব্যবসায়ী জিয়াউল বশির শাহীন ওরফে শহীদের মৃতদেহ, ও ৩টি দেশীয় তৈরী অস্ত্র, ১৮ রাউন্ড গুলি, ১৩টি গুলির খোসা ও ১৫ হাজার পিস ইয়াবা বড়ি উদ্ধার করে। এই ঘটনায় পুলিশের কনস্টেবল আজিজ (২৩), মেহেদী হাসান (২১) ও হেলাল (২২) আহত হয়। আহত পুলিশ সদস্যদের উপজেলা হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।
পুলিশ ঘটনাস্হল থেকে লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করেছে।
টেকনাফ মডেল থানার অফিসার্স ইনচার্জ প্রদীপ কুমার দাস পিপিএম সংবাদের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন,পুলিশ ঘটনাস্হল থেকে উক্ত ইয়াবা ব্যবসায়ী লাশ, ৩টি দেশীয় তৈরী অস্ত্র, ১৮ রাউন্ড গুলি, ১৩টি গুলির খোসা ও ১৫ হাজার পিস ইয়াবা বড়ি উদ্ধার করে। এই ঘটনায় পুলিশের উপর হামলা, ইয়াবা ও অবৈধ অস্ত্রসহ পৃথক মামলা দায়ের করা হচ্ছে।

Top