আওয়ামীলীগ সরকার শিক্ষা ক্ষেত্রে ব্যাপক উন্নয়ন করেছে —-প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান

DSC_0112.jpg

(ফাইল ছবি)

মোঃআবু সইদ, দক্ষিণ সুনামগঞ্জঃ
বাংলাদেশ সরকারের অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী আলহাজ্ব এম এ মানান এমপি বলেছেন, শিক্ষকদের জীবনমান উন্নয়নে সরকার ব্যাপকভাবে কাজ করছে।বাংলার ইতিহাসে দেশে এখন ভালো সময় চলছে। জননেত্রী শেখ হাসিনার দূরদর্শী পরিকল্পনায় শিক্ষা এবং শিক্ষকদের উন্নয়নে জাতীয় শিক্ষানীতি ২০১০ বাস্তবে রুপ নিচ্ছে। টিকিআই প্রকল্পের মাধ্যমে ১৬ হাজার ৩ শত জন শিক্ষকের প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে। ইতিমধ্যে ২৬ হাজার ১শত ৯৩ টি প্রাথমিক বিদ্যালয় সরকারীকরণ হয়েছে।

তিনি বলেন,সরকার ধীরে ধীরে সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে সরকারীকরণের আওতাভুক্ত করবে এতে কোন ভেদাভেদ থাকবে না। প্রত্যেকটি বিদ্যালয়কে বহুতল ভবনে উন্নীত হচ্ছে আরও হবে।এক্ষেত্রে আমাদের একটু অপেক্ষা করতে হবে।সরকারের প্রতি আস্থা রাখতে হবে।বিগত দিনে ১ লক্ষ ৪ হাজার শিক্ষকের চাকুরী সরকারী করণ করা হয়েছে। অসংখ্য মাধ্যমিক ও উচচ মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে মাল্টিমিডিয়া ক্লাস চালু করা হয়েছে।

শিক্ষকদের উদ্দেশ্যে তিনি আরও বলেন এ সরকারের আমলে নতুন পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়, স্কুল, কলেজ মাদ্রাসা নির্মাণ, বেতন-ভাতা বৃদ্ধি এবং শিক্ষকদের জীবনমান উন্নয়নে যুগান্তকারী ভুমিকা পালন করেছে।শেখ হাসিনার সরকার হাওড়বাসীর উন্নয়নে আন্তরিক বলেই সুনামগঞ্জ বঙ্গবন্ধু মেডিকেলের জন্য ১১০৭ কোটি টাকা বরাদ্ধ দিয়েছে।আমাদেরকে টেক্সটাইল ইন্সটিটিউট দিয়েছে,ফায়ার স্টেশন,বিদ্যুত,রাস্থা,ব্রীজ সব কিছুতেই পরিপূর্ণ করা হয়েছে। আর কি চাই আমাদের?কি পাইনি আমরা। তাই এখনই সময় সঠিক সিদ্ধান্ত নেয়ার,দেশের চলমান উন্নয়নের ধারাকে অব্যাহত রাখতে, শিক্ষকদের জীবন মান বৃদ্ধিকে পরিপূর্ণ করতে পুনরায় আওয়ামীলীগকে নির্বাচনে বিজয়ী করতে হবে।

শুক্রবার বিকাল ৩ টায় দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলার এফআইভিডিবির হলরুমে বাংলাদেশ প্রাথমিক বিদ্যালয় সহকারী শিক্ষক সমিতি দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলা শাখার অভিষেক ও শিক্ষাক্ষেত্রে অনন্য অবদান রাখায় সংবর্ধণা অনুষ্ঠান প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরোক্ত কথাগুলো বলেন প্রতিমন্ত্রী।

সভায় দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলা প্রাথমিক বিদ্যালয় সহকারী শিক্ষক সমিতির সভাপতি সনজয় কুমার তালুকদারের সভাপতিত্বে ও সহ সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেন ও ফয়সল খানের যৌথ সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন,কেন্দ্রীয় প্রাথমিক সহকারী শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক অজিত পাল,উপজেলা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি হাজী তহুর আলী,সাধারণ সম্পাদক আতাউর রহমান,উপজেলা সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আতাউর রহমান,কেন্দ্রীয় প্রাথমিক সহকারী শিক্ষক সমিতির সহ সভাপতি সঞ্জয় কুমার দাস,প্রচার সম্পাদক মতিলাল গুপ্ত,উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার বজলুর রহমান।

এছাড়াও আরও বক্তব্য রাখেন, সিলেট জেলা শিক্ষক সমিতি সভাপতি সুহেল আহমেদ,উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি আব্দুল কাইয়ুম,উপজেলা পুজা উদযাপন কমিটির সভাপতি ও উপজেলা আওয়ামীলীগের দপ্তর সম্পাদক বাবু দিলিপ কুমার তালুকদার,জেলা পরিষদ সদস্য জহিরুল ইসলাম জহুর,উপজেলা আওয়ামীলীগ নেতা জি এম সাজ্জাদুর রহমান, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি এডভোকেট বুরহান উদ্দিন দোলন,সিনিয়র সহ- সভাপতি প্রভাষক নুর হোসেন,জেলা প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির অাহবায়ক সাজাউর রহমান,সদস্য সচিব বেনু রঞ্জন তালুকদার,উপজেলা শাখার সহ-সভাপতি মনোহর অালী,সহ সাংগঠনিক সম্পাদক জাহাঙ্গীর হোসেন,প্রচার সম্পাদক আনোয়ার হোসেন,স্বাগত বক্তব্য রাখেন রফিকুল হক আনর।

এসময় উপস্থিত ছিলেন,সিলেট জেলা কমিটির সহ সভাপতি আবুল কালাম আজাদ,সুবুদ দেবনাথ,জগন্নাথপুর শাহজালাল মহা বিদ্যালয়ের সহযোগী অধ্যাপক এনামুল কবির,জেলা কৃষকলীগের অন্যতম সদস্য মাসুক মিয়া,সহকারী শিক্ষিকা শামিমা আক্তার,সালমা আক্তার, উপজেলা যুবলীগের সহ সভাপতি,, জুবেল আহমেদ,রাজা মিয়া,উপজেলা, কৃষকলীগ আহবায়ক ফয়েজুর রহমান,যুগ্ম আহবায়ক মাজহারুল ইসলাম মইনুল,জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক কামরুল ইসলাম শিপন,উপজেলা ছাত্রলীগের সহ -সভাপতি আল মাহমুদ সুহেল, সাধারণ সম্পাদক ইমরান হোসেন তালুকদার,যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহিদুল ইসলাম,সাংগঠনিক সম্পাদক সমিরন দাস সুবির ও উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সদস্যবৃন্দ সহ বিভিন্ন সংগঠনের নেতৃবৃন্দ প্রমুখ।অনুষ্ঠানের শুরুতে পবিত্র কোরান থেকে তিলাওয়াত করেন মাওলানা মামুনুর রশীদ ও গীথা পাঠ করে বিজন কুমার আচ্যার্য।

Top