চকরিয়ায় বিশেষ ক্ষমতা আইনে বিএনপির ৩৬জনের বিরুদ্ধে মামলা

images-4.jpg

সাঈদী আকবর ফয়সাল,চকরিয়া:
একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষনার পরপর নির্বাচন ঠেকাতে নাশকতার পরিকল্পনার অভিযোগে পুলিশ কক্সবাজার জেলার চকরিয়া উপজেলা বিএনপির সভাপতি ও সাবেক চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মিজানুর রহমান চৌধুরী খোকন মিয়াসহ দলের আট নেতাকর্মীকে আটক করেছে পুলিশ। গতকাল বুধবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে উপজেলার ডুলাহাজারাস্থ বৈরাগীর খীল নিজবাড়ি থেকে বিএনপির সভাপতিসহ নেতাকর্মীদের আটক করে পুলিশ। এ ঘটনায় পুলিশ আটকৃতরাসহ ২৪ জনের নাম উল্লেখ পূর্বক ৩৬ জনের নামে একটি মামলা দায়ের করে।
আটকৃতরা হলেন, খুটাখালী ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি জাফর আহমদ, ইউনিয়ন বিএনপির সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক ফরিদুল আলম, উপজেলা যুবদলের যুগ্ম আহবায়ক আবদুস ছালাম, ডুলাহাজারা যুবদলের সাবেক যুগ্ম আহবায়ক নূরুল আলম, আজিম, ইউনিয়ন ছাত্রদলের সাবেক আহবায়ক আনোয়ার পারভেজ সোহেল, ডুলাহাজারা ইউনিয়ন ছাত্রদলের সিনিয়র যুগ্ম আহবায়ক হেলাল উদ্দিন ও সাবেক সদস্য সচিব মোহাম্মদ হেলাল।
যারা আসামী হয়েছেন, তারা হলেন, উপজেলার, ডুলাহাজারা বালুর চরের ফরিদুল আলমের পুত্র মফিজুর রহমান মুসা, চকরিয়া পৌরসভার বিনামারা এলাকার মৃত মাওলানা শফিউল আলমের পুত্র ফখরুদ্দীন ফরায়েজী, চিরিঙ্গা ইউনিয়নের বুড়িপুকুর এলাকার ইয়াকুব আলী পুত্র ইব্রাহিম খলির কাকন, পূর্ববড় ভেওলার আনিচ পাড়া এলাকার মৃত মীর কাশেমের পুত্র সোয়াইবুল ইসলাম সবুজ, কোনাখালী বাংলা বাজার এলাকার মোস্তাক আহমদের পুত্র সালাউদ্দিন, পৌরসভার ফুলতলা এলাকার মৃত আবদুল গনির পুত্র রানা হামিদ, হাজিয়ান এলাকার মৃত আলী চান সওদাগরের পুত্র মোবারক আলী, খুটাখালী ৭ নং ওয়ার্ডের ছাবের আহমদের পুত্র মো. আনিছুর রহমান, পৌরসভার কাজী পাড়া ১নং ওয়ার্ডের ঠান্ডা মিয়ার পুত্র আলী আকবর, ডুলাহাজারা সুয়াজানিয়া এলাকার মৃত দুলাল আহমদের পুত্র বখতিয়ার, বরইতলী খরাতি পাড়া এলাকার আবদু ছোবাহানের পুদ্র হাবিব উল্লাহ, বরইতলী উপর পাড়া এলাকার আবদুল হাইয়ের পুত্র ইউসুফ, পৌরসভার হাসপাতাল পাড়ার মৃত সুলতান আহমদের পুত্র জয়নাল আবেদীন, ডুলাহাজারা ডুমখালী এলাকার মো: হোসেনের পুত্র নজির আহমদ, ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নের রাজারবিল এলাকার হাজী নুরুল কাদেরের পুত্র ওবাইদুল্লাহ নুর সিদ্দিকী, পূর্বপাড়া ০৬ নং ওয়ার্ডের মৃত নূর আহমদের পুত্র মহিদুল। এছড়া অজ্ঞাতনা দেখানো হয়েছে ১০/১২ জন। আসামীদের বিরুদ্ধে ১৯৭৪ সালের বিশেষ ক্ষমতা আইনের ১৫(৩) ধারায় চকরিয়া থানার এসআই আলমগীর বাদী হয়ে মামলা নং ১৬ দায়ের করা হয়।
অভিযানের সত্যতা নিশ্চিত করে চকরিয়া সার্কেলের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার কাজী মতিউল ইসলাম বলেন, গোপনসূত্রে খবর পেয়ে থানার একদল পুলিশ রাতে উপজেলা বিএনপির সভাপতির বাড়িতে অভিযান চালায়। ওই সময় একাদশ সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষনা করলেই চকরিয়া অচল করে দেয়ার পরিকল্পনার একটি চিরকুট ও লাটিসোটাসহ উপজেলা বিএনপির সভাপতি খোকন মিয়াসহ অপর ৭ জনকে আটক করা হয়। আজ ৮নভেম্বার আটককৃতদের কোটের মাধ্যমে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।#

Top