স্কাউটের ধর্মই হলো সেবাব্রত–ওসমান গনি শুভ

download-1-5.jpg

————————–
স্কাউটিং বিশ্বব্যাপী একটি যুব সংস্থা। এর লক্ষ্য যুবকদের শারীরিক ও মানসিক বিকাশ। যাতে করে তারা সমাজ গঠনে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখতে পারে। স্কাউট আন্দোলন শুরু করেন লর্ড ব্যাডেন পাওয়েল ১৯০৭ সালে। তিনি যুক্তরাজ্যে জন্মগ্রহণ করেন।কালক্রমে এটি পৃথিবীর সমস্ত দেশে ছড়িয়ে পড়ে। সেবাব্রতই হল স্কাউটের মূল লক্ষ্য।

অপরদিকে বাংলাদেশ স্কাউটস হলো বাংলাদেশের জাতীয় স্কাউট সংগঠন। এই অঞ্চলে স্কাউটিং কর্মকান্ড শুরু হয় ১৯১৪ সালে তৎকালীন পূর্ব পাকিস্থান (বর্তমান বাংলাদেশ) স্কাউট অ্যাসোসিয়েশনের ব্রিটিশ ভারতীয় শাখার অংশ হিসাবে। পরে পাকিস্থান বয় স্কাউট অ্যাসোসিয়েশনের অংশ হিসাবে স্বাধীনতার পূর্ব পর্যন্ত এখানে স্কাউটিংয়ের কার্যক্রম চলে। বাংলাদেশ স্বাধীন হওয়ার পর ১৯৭২ সালে বাংলাদেশ স্কাউট এসোসিয়েশন নামে জাতীয় পর্যায়ে একটি সংগঠন গড়ে ওঠে। বাংলাদেশ আন্তর্জাতিক স্কাউট আন্দোলনের সদস্য হয় ১৯৭৪ সালে। পরবর্তীতে ১৯৭৮ সালে বাংলাদেশ স্কাউট এসোসিয়েশন এর নাম রাখা হয় বাংলাদেশ স্কাউটস। ২০১৫ সালের হিসাবে বাংলাদেশে স্কাউটের সংখ্যা ১,৪৭৪,৪৬০ জন।
ব্যাডেন পাওয়েল ছিলেন ব্রিটিশ সেনাবাহিনীর একজন অবসরপ্রাপ্ত লেফটেন্যান্ট জেনারেল। বর্তমান পৃথিবীতে একশ কোটি স্কাউট এবং গাইড বিভিন্ন স্কাউটিং সমিতির প্রতিনিধিত্ব করছে। এভাবে স্কাউটিং এ সেবাব্রত নিয়ে এগিয়ে যাবে বাংলাদেশ।

মো.ওসমান গনি শুভ
শিক্ষার্থী, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়।

Top