নিরাপদ সড়ক চাই ১৬কোটি মানুষের অধিকার–নিজাম উদ্দিন

43950645_1284344158372622_8019222631947436032_n.jpg

———————————-
দেশব্যাপী অনিয়ম দূর্নীতি বিশৃংখল নৈরাজ্যের প্রতিবাদে সড়ক দূর্ঘটনা রোধে,নিরাপদ সড়ক চাই আন্দোলনে সাধারন ছাত্র/ছাত্রীদের বিস্ময়কর প্রতিরোধ। সারা দেশের মানুষের নিরব সমর্থনে একটি ভঙ্গুর রাষ্ট্র মেরামতে সাধারন ছাত্র/ছাত্রীদের দেশপ্রেম সাহসীকতায় গর্বিত মা বাবা। সোনালী সূর্যোদয়ের সাহসী ক্ষুদে যোদ্ধাদের দেশের লক্ষ কোটি মানুষ যেখানে স্যালুট করছে,তাদের নিয়ে গৌরবের মহাকাব্য সুন্দর শান্তিপূর্ণ নিরাপদ বাংলাদেশ প্রত্যাশা করছে,সেখানে কার ইশারা ইঙ্গিতে শ্রমিক ধর্মঘটের নামে ছাত্র/শ্রমিক সংঘর্ষের পরিস্থিতি বা তাদের মুখো মুখি করা হয়েছিল,নিশ্চয়ই দেশবাসীর বুঝার ক্ষমতা আছে।
আমরা কতটা দেশকে ভালোবাসি,আইন মেনে চলি? ক্ষমতায় দম্ভে আমরা কি ভাবে রাস্তায় চলি ? ছোট ছোট বাচ্চারা আঙ্গুল দিয়ে দেখিয়ে দিয়েছে, আমাদের দায়িত্ব,কর্তব্য, আমরা কতটা অবৈধ পথে ?
মন্ত্রী,এমপি,সচিব, পুলিশ র্যাব কর্মকর্তা,বিচারপতির গাড়ি চলে ড্রাইভারের লাইসেন্স ছাড়া, বৈধ কাগজ ছাড়া ?
কেন আমরা রাস্তা গাড়িতে নিরাপদ নয়, দেশবাসী অসহায়ের মতো শুধু দু চোখ দিয়ে দেখেছে।
যেখানে এই ক্ষুদে দেশপ্রেমিকদের সম্মান সমর্থন দিয়ে সহযোগিতা করার কথা, সেখানে তাদের উপর দিয়ে নির্বিচারে লাঠিচার্য তাদের উপর দিয়ে গাড়ি চালানো,আহত নিহত করা হচ্ছে প্রতিবাদী ছাত্রদের। আমরা কি কোন দিনও সভ্য হব না ? আমরা কি কখনও ভালো কোন স্বপ্ন দেখব না?
এই ছোট্ট দেশপ্রেমিকরা কত মজবুত করে দেশটাকে মেরামত করার স্বপ্ন বুঁনেছে, তাদের মেধা মনন দেশাত্ববোধ দায়িত্ববোধের চিন্তা স্পর্শ করছে ১৬কোটি মানুষের হৃদয় মনে। কত নিখাঁদ,কত মহৎ তাদের ভাবনা। কেন আমরা সমস্ত ভালোবাসা উজাড় করে তাদের সমর্থন দিতে পারি না ? কেন এতো হীনমন্যতা ?
তারা তো কাউকে ক্ষমতা থেকে নামাতে চায়নি,কাউকে ক্ষমতায় বসাতেও চায়নি। তারা শুধু লাইসেন্স ছাড়া অদক্ষ ড্রাইভার, ফিটনেস বিহীন গাড়ি দ্বারা তাদের সহপাঠির হত্যার প্রতিবাদে নিরাপদ সড়কের দাবিতে রাস্তায় প্রতিবাদ করছে।
একটু ইচ্ছা একটি চেষ্টা করলে নিরাপদ সড়কে সুন্দর স্বপ্ন বাঁচিয়ে রাখা যায় তা প্রমাণ করতে তারা সক্ষম হয়েছে।
ছাত্র/ছাত্রীরা শুধু আইন মেনে চলার বা বাধ্য করার চেষ্টা করেছে। তারা যেভাবে মন্ত্রী এমপি সচিব বিচারপতিদের আইন অমান্য বা গাড়ির ড্রাইভারের লাইসেন্স ও প্রয়োজনীয় কাগজ ছাড়া গাড়ি থামাতে গাড়ি থেকে নামতে বাধ্য করেছে,তা নিশ্চয়ই দেশবাসীর কাছে প্রশংসিত। ট্রাফিকের দায়িত্বে থাকা সরকারী কোন কর্মকর্তার কতটা সাহস আছে তাদের গাড়ি আটকানোর,বা সেই শ্রদ্ধেয় ব্যক্তিদের গাড়ি থেকে নামানোর ?

আমরা কেন সব কিছুতেই শুধু রাজনীতি খুঁজে বীরত্ব গাঁথা অনেক বিপ্লব এবং বিপ্লবের মহা নায়কদের খাটো করছি? পৃথিবীর অন্যদেশে এমন দেশপ্রেম সাহসীকতার জন্য যেখানে তাদের সম্মানীত পুরস্কৃত করার কথা, সেখানে কিন্তু আমরা শুধু নির্মমতা দেখি। কোটা সংস্কার আন্দোলনে মেধাবী বীর সন্তান আরিফের লাশ ভেসে থাকে বুড়িগঙ্গায়, বীভৎস ছবি দেখে দেশের মানুষ দেশপ্রেম ভূলে যায়, ভয়ে আতংকিত হতে হয়।
এমন বাংলাদেশের জন্য ৩০লক্ষ মানুষ নিশ্চয়ই জীবন উৎস্বর্গ করেনি?
কোটা পদ্ধতি সংস্কারের দাবীতে আন্দোলন করলো সাধারন মেধাবী শিক্ষার্থীরা সফল হলো তারা, সফল হলো ঐতিহ্যের সাড়া জাগানো ছাত্র আন্দোলন,নতুন করে ইতিহায় সৃষ্টি হলো। সারা বাংলায় রব উটলো ছাত্রদের অধিকারের আন্দোলন কোন সরকার বা শ্বৈরসরকার কখনও দমিয়ে রাখতে বা ব্যর্থ করতে পারেনি,আবারও প্রমাণীত হলো।
যুগে যুগে যে কোন আন্দোলনে যে কোন পরিস্থিতে কোন এক স্থানে একজন সাহসী মানুষ দাঁড়িয়ে গেলে বিভিন্ন প্রান্ত থেকে সেই সাহসী মানুষটিকে সহযোগিতার জন্য হাজারো লক্ষ প্রতিবাদী মানুষ ছুটে আসে শুধু একটি স্থান টিক করে, একজন সাহসী মানুষ দাঁড়িয়ে গেলেই একটা সফল যুক্তিক দাবী, একটা বিপ্লব আন্দোলন ইতিহাসে অমরত্ব লাভ করে।
যেমন করে শুরু হয়ে ছিল আমাদের রাষ্ট্রভাষা আন্দোলন, স্বাধীনতা আন্দোলন,যেমন করে গর্জে উঠেছিলেন একজন মেজর জিয়া। নুর হোসেন, ডাঃ মিলনরা জীবন দিয়ে সরিয়ে গেছে এরশাদকে। যেমন করে তুরস্কের এরদোগানকে রক্ষা করলো রাতের আধাঁরে লক্ষ লক্ষ জনতা। যেমন করে দূর্নীতি বিরোধী আন্দোলনে ভারত বর্ষ কাপিয়ে দিল একজন কেজরী ওয়াল।
৩০লক্ষ শহীদের রক্তেভেজা স্বাধীনতার বীরত্বগাঁথা গৌরব,মানুষের ভোটের অধিকার ভাতের অধিকার ন্যায় বিচারের করুন আর্তনাদ আজ আকাশে বাতাসে। এমন পরিস্থিতিতে কিছু সাহসী মানুষের ক্ষীন কন্ঠের আওয়াজ জাতিকে আলোড়িত করে। জাতি স্বপ্ন দেখে একজন সাহসী মানুষের দেশপ্রম বুদ্ধিমত্ত্বায় সমগ্র জাতি নতুন করে ঐক্যবদ্ধ হবে নতুন চিন্তাশক্তি আর আধুনিক দেশগড়ার প্রেরণা শপথ নিয়ে দেশকে এগিয়ে নিবে। যেমন করে লেনসন ম্যান্ডেলা দেশকে ভালো বেসেছিলেন, ভালোবেসছিলেন মাহাতির মোহাম্মদ। যেমন করে দেশের জন্য সংগ্রাম করেছেন মাওলানা আব্দুল হামিদ খাঁন ভাসানী,বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান,শহীদ প্রেসিডেন্ট বীর উত্তম জিয়াউর রহমান।
ঘসেটি বেগম আর মীর জাফরদের ভীড়ে দেশপ্রেমিক ঈমানদাররা যেন হারিয়ে না যায়, সে প্রার্থনা মহান মাবুদের দরবারে।
গণতন্ত্র আজ বন্ধিশালা থেকে দরজা জানালা খুঁজে।
কোটা পদ্ধতি সংস্কার আন্দোলনে কত যৌক্তিকথা আজ সরকারের তেলেসমাতিতে হারিয়ে যাচ্ছে,আরিফের স্বজনদের আর্তনাদে কত সম্ভাবনা নিরব নিভৃতে কাঁদে।
নিরাপদ সড়ক চাই দেশের ১৬কোটি মানুষের অধিকার,সেই অধিকার আন্দোলনে আমাদের সন্তানদের, শিক্ষার্থী ভাই বোনদের দেশপ্রেম দায়িত্ববোধের জন্য আমরা গর্বিত। আমাদের নৈতিক সমর্থন তাদের প্রাপ্য। কিন্তু না, তাদের নিয়ে নোংরা রাজনীতির আয়োজন চলছে,তাদের সুচিন্তা কাজকে বাধাগ্রস্থ করা হচ্ছে। দেশের মানুষ বিশ্বাস করে এদের পাশে থেকে পথ দেখালে, সহযোগিতা এবং তাদের প্রতি যত্নবান হলে এরাই একদিন ঘুষ দূর্ণীতিমুক্ত সুন্দর নিরাপদ বাংলাদেশ উপহার দেবে।
সরকার চাইলে কলেজ বিশ্ববিদ্যালের ছাত্র/ছাত্রীদের দেশের কাজে মাসে অন্তত ১দিন ট্রাফিকের দায়িত্ব দিলে স্বগৌরবে তারা দায়িত্ব পালন করবে,তাদের চিন্তা আকাংখা তাই মনে হচ্ছে।

আমি নিজে জীবনে বহু বার সড়ক দূর্ঘটনায় আক্রান্ত হয়েছি। সর্বশেষ গত ২১সে সেপ্টেম্বর ২০১৮ইংরেজী ঢাকা থেকে সিলেট আসার পথে নবীগঞ্জের আউশকান্দি নামক স্থানে রাত প্রায় ১০ঘটিকার সময় লন্ডন এক্সপ্রেস বাস এবং বিপরীত দিক থেকে বেপরোয়া গতিতে আসা ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষ। আমি সেই বাসের যাত্রী ছিলাম দূর্ঘটনার ভয়াবহতায় মনে হয়নি এই জমিনে বেচে থাকবো। ড্রাইভার হয়তো বেচে থাকলেও সারা জীবন পঙ্গুত্ব বরণ করে জীবন চালাবে। প্রিয়জন আর আমার কলিজার টুকরো দুইটা সন্তানের দোয়ায়, তাদের আদর সোহাগের জন্য দয়াময় আল্লাহ তার খুদরতি হাত দিয়ে আমাকে হয়তো অক্ষত অবস্থায় বাচিয়ে রেখেছেন। লক্ষ কোটি শুকরিয়া আদায় করি মহান মাবুদের দরবারে।
এই দূর্ঘটনার কারন নিশ্চয়ই ট্রাকের অদক্ষ ড্রাইভার,একজন অদক্ষ ড্রাইভারের কারনে বহু প্রাণহানী ঘটতে পারে,গাড়ির মালিকের দায়িত্বও কম না ? তাই সড়ক দূর্ঘটনা রোধে রোড ট্রান্সপোর্ট অথোরিটি এবং ট্রাফিক বিভাগ আরো অধিকতর দায়িত্বশীল হওয়া উচিত।
দয়াময় আল্লাহর দরবারে প্রার্থনা করি পবিত্র কলিমার সহিত আমাদের প্রত্যেকের যেন অক্ষত অবস্থায় স্বাভাবিক মৃত্যু হয়।

আসুন ট্রাফিক আইন মেনে চলি নিরাপদে বাড়ি ফিরি।

# মোঃ নিজাম উদ্দিন,সাবেক চেয়ারম্যান
খুরমা (উত্তর) ইউনিয়ন পরিষদ,ছাতক।

Top