বাংলাবান্ধা ইমিগ্রেশন দিয়ে ভারতে গিয়ে বিএসএফের হয়রানির শিকার বাংলাদেশি রোগী

received_1891731417590039.jpeg

পঞ্চগড় প্রতিনিধি:
পঞ্চগড়ের বাংলাবান্ধা ইমিগ্রেশন চেক পোষ্ট দিয়ে বাংলাদেশ থেকে ভারতে মেডিকেল ভিসায় চিকিৎসার জন্য যাওয়া রোগীরা ফুলবাড়ী বিএসএফের বিভিন্ন হয়রানির শিকার হতে হচ্ছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

বাংলাদেশ থেকে ভারতে চিকিৎসার জন্য যাওয়া এক মানুষীক প্রতিবন্ধি রোগীর খাবার ফেলেদিয়েছে বিএসএফ ।চলতি সপতাহে বাংলাবান্ধা ও ফুলবাড়ি সীমান্তে ভারতের চেকপোষ্টে এই ঘটনাটি ঘটে। ওই অভিযোগকরীর সাথে কথা বল্লে বেরিয়ে আসে নানান হয়রানির শিকারের কথা।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুন ও অভিযোগকারী জানান, আমি আমার অসুস্থ ৭ বছরের শিশুকে নিয়ে মেডিকেল ভিসায় ভারতের শিলিগুড়িতে যাওয়ার সময় বাংলাবান্ধা দিয়ে বাংলাদেশ পেরিয়ে ভারতে যাই। ভারতে প্রবেশের পর ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিএসএফ চেকপোষ্টে গেলে অন্য কোন কিছু চেক না করে হাতে থাকা ও ব্যাগ থেকে আমার ৭ বছরের অসুস্থ শিশুর খাবার বের করে ফেলে দেয় এবং আমার সাথে দুর্ব্যবহার করে। অসুস্থ শিশুর খাবার ফেলে দেওয়ায় বিএসএফের কাছে জানতে চাইলে, সাথে সাথে সিটি দিয়ে অনেক বিএসএফ জরো করেন এবং উত্তরে বিএসএফ বলে কোনে কথা হবেনা, একই সাথে সাথে নানান রকম হুমকি ধমকি দিয়ে মিথ্যা মামলায় ফাঁশিয়ে দেওয়ার হুমি দেয়।তবে আমার মানুষীক প্রতিবন্ধি সন্তানের জন্য বাড়ী থেকে তৈয়রি করা সে দিনের কিছু রান্ন করা খাবার এবং কয়েকদিন থাকতে হবে বলে দু কেজি শুকনো গুরো খাবার সব গুলো ফেলে দেয় বিএসএফ।আমি সে গুলো কুরিয়ে নিতে চাইলেও তারা আমাকে সে গুলো নিতে দেয়নি।

তিনি আরো জানান, ভিনদেশি হওয়ায় তাদের সাথে বাড়াবাড়ি না করে চিকিৎসা নিয়ে চলে যাই। তবে সন্তান খাবার অভাবে সে দিন অনেক কষ্ট পেয়েছে। কারন প্রতিবন্ধি সন্তান সব খাবার মুখে নেয়না।খাবার অভাবে ভালো চিকিৎসা করাতে না পেরে একদিন পর ভারত ছেরে বাংলাদেশে চলে আসতে হয়।

মেডিকেল ভিসায় চিকিৎসা নিতে যাওয়া আরো কয়েকজন রোগী বিভিন্ন ভাবে বিএসএফের কাছে হয়রানীর শিকার হয়েছে বলে আরো কয়েকজন অভিযোগ করে জানান, আমরা সাধারণত একজন অসুস্থ মানুষের জন্য সাথে করে একটু খাবার নিয়ে যেতেই পারি। তাই বলে অসুস্থ মানুষের খাবার ফেলে দিতে হবে। দুই দেশের সরকার এমন তো কোন আইন করেনি যে একজন অসুুস্থ লোক তার জন্য খাবার নিয়ে কোন দেশে প্রবেশ করতে পারবে না।

এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে বিভিন্ন মহলে সৃষ্টি হয়েছে তীব্র প্রতিক্রিয়া । এই ঘটনার তিব্র নিন্দা জানিয়েছেন সচেতন মহল ।

Top