জগন্নাথপুরে পুলিশের অভিযানে দুই পর্নো ছবি ব্যবসায়ী সহ গ্রেফতার ৩

News-Photo-01-5.jpg

জগন্নাথপুর (সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধি::
সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর থানায় পর্নো ভিডিও ব্যাবসায়ীদের বিরুদ্ধে নিয়মিত অভিযানে ২জন পর্নো ব্যবসায়ী সহ ৩জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গ্রেফতারকৃতরা হলেন উপজেলার পাটলি ইউনিয়নের হামিদপুর গ্রামের মৃত নুর উদ্দিনের ছেলে আতিকুর রহমান (২৪), বনগাঁও গ্রামের মো. ওয়ারিশ আলীর ছেলে আলাল হোসেন (২৪), পাইলগাঁও ইউনিয়নে এরারিয়া গ্রামের রফিক মিয়া।
জগন্নাথপুর থানার পুলিশ সূত্রে জানা যায়, গত শুক্রবার থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ হারুনূর রশীদ চৌধুরীর দিক নির্দেশনায় থানার এসআই লুৎফুর রহমানের নেতৃত্বে একদল পুলিশ গোপন সংবাদের ভিত্তিতে এরালিয়া বাজারের বিভিন্ন কম্পিউটার দোকানে অশ্লীল পর্নো ভিডিও টাকার বিনিময়ে সরবরাহ হচ্ছে। উক্ত সংবাদের ভিত্তিতে এরালিয়া পূর্ব বাজারস্থ আনিছা টেলিকম নামক দোকানে পর্নো ভিডিও সহ একটি কম্পিউটার উদ্ধার পূর্বক জব্দ করা হয়। এবং আনিছা টেলিকম নামক দোকানের পার্শ্ববর্তী দোকান মা ডিজিটাল স্টুডিও নামক দোকানেও পর্নো ভিডিও সহ কম্পিউটার উদ্ধার করে আতিকুর রহমান (২৪) ও আলাল হোসেন (২৪)কে দুই দোকানের মালিক দুইজনকে গ্রেফতার করা হয়। উক্ত বিষয়ে ব্যাক্তিদের বিরুদ্ধে ২০১২ সনের পর্নোগ্রাফি নিয়ন্ত্রন আইনের ৮ (৫)(ক) ধারায় নিয়মিত মামলা রুজু করা হয়েছে।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, দুটি কম্পিউটারের দোকানে র্দীঘ দিন ধরে কম্পিউটারে অশ্লীল পর্নো ভিডিও সমূহ টাকার বিনিময়ে এলাকার মানুষের নিকট সরবরাহ করিয়া আসিতেছে। উল্লেখিত ব্যক্তিগন কম্পিউটার দ্বারা দীর্ঘ দিন যাবৎ পর্নো ভিডিও সরবরাহ করিয়া এলাকার যুব সমাজ সহ স্কুল-কলেজের ছাত্র-ছাত্রীদের র্ধ্বংসের মুখে ঠেলে দিচ্ছে।
এদিকে একই দিন এসআই অনিক চন্দ্র দেব এর নেতৃত্বে একদল পুলিশ সিআর ১০/১৮ (জগঃ) এর ওয়ারেন্টভুক্ত পলাতক আসামী রফিক মিয়া এরারিয়া গ্রামের নিজ বাড়ী থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে। গ্রেফতারকৃত আসামীদের গতকাল শনিবার সুনামগঞ্জ বিজ্ঞ আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।##

Top