ডোমারে বিদ্যুৎ অফিসের গাড়ী চালকের গলাকাটা লাশ উদ্ধার, আটক ৭

download-13.jpg

বখতিয়ার ঈবনে জীবন, ডোমার (নীলফামারী) প্রতিনিধি ঃ
নীলফামারীর ডোমার বিদ্যুৎ অফিসের গাড়ী চালক স্বাধীন ইসলামের(২২ ) গলাকাটা লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার সন্ধায় উপজেলার আনসার-ভিডিপি উন্নয়ন ব্যাংকের উপর তলায় তার শয়নকক্ষ থেকে গলাকাটা লাশ উদ্ধার করা হয়। স্বাধীন ইসলাম রংপুর কারমাইকেল কলেজ রোডের মোঃ বাবু ইসলামের ছেলে। সে ডোমার বিদ্যুৎ অফিসের নির্বাহী পরিচালকের গাড়ীর ড্রাইভার।
ডোমার বিদ্যুৎ বিতরন বিভাগের নির্বাহী পরিচালক মোঃ সাইফুল মন্ডল জানান,উপজেলা পরিষদ মাঠ সংলগ্ন আনসার-ভিডিপি উন্নয়ন ব্যাংকের উপরের তলার একটি কক্ষে সে ভাড়া থাকতো। সকাল থেকেই তার ফোন বন্ধ অফিসেও আসেনি। বিকালে কাজের প্রয়োজনে তার বাড়ীতে আমার অফিসের লোকদের পাঠায় দেই তার খোজে। অফিসের লোকজন তার কক্ষের সামনে তার স্যান্ডেল দেখতে পায়। তবে রুমটি বাইরে থেকে তালাবদ্ধ ছিল। অফিসের লোকজন তাকে ডাকলেও ভিতর থেকে কোন সাড়া-শব্দ না পেয়ে আমাকে বিস্তারিত জানালে আমি পুলিশে খবর দিলে থানার এসআই মাসুদ এসেবাইরে থেকে তাকে ডেকে কোন প্রতুত্তর না পেয়ে তার শয়ন কক্ষের একটি জানালার শিকল ভাঙ্গলে দেখা যায় গলায় কাপড় পেচানো রক্তাত্ব মৃতদেহ পরে রয়েছে। দেয়ালে রক্তের ছাপ ও ডানহাতটি বালিশের নিচে। তবে কি কারনে এমন ঘটনা ঘটতে পারে বিষয়টি তিনি বলতে পারেন নি। পরে সেখানে সহকারী পুলিশ সুপার (সার্কেল) জয়ব্রত পাল ঘটনা স্থলে যান।
প্রাথমিক ভাবে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য বাড়ীর মালিক আশিকুর রহমান. বিদ্যুৎ অফিসের সাহায্যকারী মাহাফুজ, আবুল কালাম আজাদ, বীল বিতরণকারী অর্পন, সাঈদ, ড্রাইভার সোহাগ, নীল মটস্ এর কর্মচারী গৌতমসহ ৭জনকে আটক করে পুলিশ। এদিকে তার হত্যার খবর ছড়িয়ে পরলে উৎসুক জনতা ভিড় জমায় বাড়ীটির সামনে। এসআই মাসুদ হত্যার বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান,আমি এসে একটি জানালার শিকল খুলে দেখতে পাই গলায় কাপড় পেচানো রক্তাত্ব মৃতদেহ।
ডোমার থানার অফিসার্স ইন চার্জ মোঃ মোকছেদ আলী মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান,লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য জেলার মর্গে প্রেরন করা হবে। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

Top