চলে গেলেন আনোয়ারা উপজেলার সাবেক চেয়ারম্যান শওগাত মিয়া

IMG_20180903_182032.jpg

ডি এইচ মনসুর:

আনোয়ারার উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান অালহাজ্ব আনোয়ারুল ইসলাম খান (শওগাত)(৭৪) গতকাল রোববার রাতে নগরীর একটি বেসরকারি হাসপাতালে ইন্তেকাল করেছেন (ইন্নালিল্লাহি…রাজেউন)। এলাকায় তিনি শওগাত মিয়া নামেই বেশি পরিচিত ছিল।

স্থানীয় ইউপি সদস্য অাজিজুল হক অাজিজ জানান, গতকাল রাত নয়টার দিকে নগরীর চন্দনপুরার বাসায় হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়লে তাঁকে কাতালগঞ্জ এলাকার একটি বেসরকারি হাসপাতালে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

সোমবার সকাল ১১টায় আনোয়ারা উপজেলা মাঠে প্রথম নামাজে জানাযা, যোহরের নামাজের পর তৈলারদ্বীপ এরশাদ আলী হাই স্কুল মাঠে দ্বিতীয় জানাযা ও আসরের নামাজের পর হাজী মোহাম্মদ মোহসিন কলেজ মাঠে তৃতীয় দফায় নামাজে জানাযা শেষে চন্দনপুরা পারিবারিক কবরস্থানে মরহুমের লাশ দাফন করা হয়।

সমাজসেবী, শিক্ষানুরাগী, রাজনীতিক আনোয়ারুল ইসলাম খান আওয়ামীলীগের সাবেক প্রেসিডিয়াম সদস্য আতাউর রহমান কায়সারের ছোট ভাই ও সংরক্ষিত মহিলা সংসদ সদস্য ওয়াশিকা আয়শা খানের চাচা। মৃত্যুকালে জনাব সওগাত স্ত্রী, এক ছেলে, এক মেয়েসহ অসংখ্য গুনগ্রাহি রেখে গেছেন।
তিনি আনোয়ারা উপজেলার তৈলারদ্বীপ এলাকার এক সময়কার জমিদার এয়ার আলী খানের পুত্র।

আনোয়ারুল ইসলাম খান তৈলারদ্বীপ এরশাদ আলী উচ্চ বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি হিসাবে দায়িত্ব পালন ছাড়াও আনোয়ারা আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়, আনোয়ারা কলেজসহ বেশ কিছু প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন।

আনোয়ারুল ইসলাম খান সওগাতের ইন্তেকালে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন ভূমি প্রতিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদ, সাবেক মেয়র মাহমুদুল ইসলাম চৌধুরী, দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোছলেম উদ্দিন আহমদ ও সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান, আনোয়ারা উপজেলা চেয়ারম্যান তৌহিদুল হক চৌধুরী, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান শাহাদত হোসেন চৌধুরী, অানোয়ারা উপজেলা অাওয়ামীলীগের সভাপতি অধ্যাপক এম এ মান্নান চৌধুরী, সাধারন সম্পাদক এম এ মালেক, বরুমচড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো: শাহাদত হোসেন চৌধুরী, অানোয়ারা প্রেস ক্লাবের সহ সভাপতি মো: মোরশেদ হোসেন, অানোয়ারা সাংবাদিক ফোরামের সাধারন সম্পাদক জাহেদুল হক প্রমূখ।
এক শোকবার্তায় তারা মরহুমের রুহের মাগফেরাত কামনা করেন এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানান।

Top