ঈদগাঁওতে বনকর্মীর গুলিতে নিহত মোস্তাকের দাফন সম্পন্নঃ জড়িতদের শাস্তির দাবী পরিবার ও এলাকাবাসীর

received_2160314444254434.jpeg

মোঃ মিছবাহ উদ্দিন#
কক্সবাজার সদরের ঈদগাঁওতে বনকর্মীর গুলিতে নিহত মোস্তাকের দাফন সম্পন্ন হয়েছে।১৮ আগষ্ট বিকাল ৫ টা ২০ মিনিটে চাঁন্দের ঘোনা
লামার পাড়া কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে জানাযা পরবর্তী স্থানীয় কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়।জানাযায় ইমামতি করেন মৌলভী সিরাজ উদ্দীন। এ সময় সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে নিহত মোস্তাকের ছোট ভাই শফি আলম উপস্থিত এলাকাবাসী ও আগত মুসল্লীদের সামনে তার ভাইকে পরিকল্পিত ভাবে গুলি করে হত্যা করার দায়ে জড়িত বিট কর্মকর্তার ফাঁসি দাবী করেন।স্থানীয় উপস্থিত এলাকাবাসী তার বক্তব্যে সমর্থন জানিয়ে উচ্চস্বরে হাত তোলে বলেন এই জগন্যতম হত্যাকান্ডে জড়িত সকলকে আইনের আওতায় আনতে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেন। এর আগে দুপুর ২ টার দিকে তার লাশ ময়না তদন্ত শেষে এলাকায় পৌছলে আকাশ বাতাশ ভারি হয়ে উঠে। স্বজন ও স্থানীয়দের মাঝে নেমে আসে শোকের ছাঁয়া। উল্লেখ্য,১৭ আগষ্ট সকাল আনুমানিক ১০ টার দিকে ঈদগাঁও মেহের ঘোনা বিটের চাঁন্দের ঘোনা উছিন্না মোরা এলাকায় বন বিভাগের জমির উপর পলিথিন দিয়ে ঝুঁপড়ি ঘর নির্মাণকে কেন্দ্র করে এ ঘটনার সূত্রপাত হয়। স্থানীয়রা জানায়,এদিন স্থানীয় মৃত মোহাম্মদ হোসেনের পুত্র মোস্তাক আহমদসহ আরো ৪/৫ লোক তার বাড়ির পার্শ্ববর্তী এক অসহায় নারীকে ঝুঁপড়ি ঘর নির্মাণ করে দিতে সহযোগীতা করে।খবর পেয়ে মেহেরঘোনা বিট কর্মকর্তা মামুন অর রশিদের নেতৃত্বে একদল বনকর্মী ঘটনাস্থলে গিয়ে ঝুঁপড়ি নির্মাণে বাধা দেওয়ার চেষ্টা করে।এ সময় নিহত মোস্তাকের সাথে বনকর্মীদের সাথে বাকবিতণ্ডা হয়।এক পর্যায়ে হাতাহাতির রূপ নিলে পরিস্থিতি ঘোলাটে হয়ে যায়।এক পর্যায়ে বিট কর্মকর্তা মামুন মোস্তাক আহমদকে গুলি করে বলে জানায় গুলিবিদ্ধ মোস্তাকের ভাই শফি আলম।পরে এলাকার লোকজন গুলিবিদ্ধ অবস্থায় মোস্তাককে উদ্ধার করে হাসপাতালে নেওয়ার পথে তার মৃত্যু হয়। মৃত্যুর সংবাদটি এলাকায় চাউর হলে উত্তেজিত জনতা বনকর্মীদের ধাওয়া করে মারধর করে।এ সময় তাদের ৭ কর্মকর্তা -কর্মচারী আহত ও চাইনিজ রাইফেল ভাংচুর ও লুট করা হয়েছে বলে রেঞ্জ কর্মকর্তা মোঃ মামুন মিয়া দাবী করেন।এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত কোন পক্ষ মামলা/অভিযোগ করেনি বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে।এলাকাবাসীর অভিযোগ বন বিভাগের লোকজন ইতিমধ্যে নিরহ ব্যক্তিদের নামে মামলা করতে উঠে পড়ে লেগেছে। তারা প্রশাসনের হস্থক্ষেপ কামনা করেন।

Top