দোয়ারায় মুক্তিযোদ্ধের যাদুঘর ও লাইব্রেরী , কলেজের ফলক উন্মোচন ও বৃক্ষরোপন করেন জেলা প্রশাসক

38696038_305410023337962_3603914574266368000_n.jpg

এম এ মোতালিব ভুঁইয়া :
দোয়ারাবাজার উপজেলার বাংলাবাজার ইউনিয়ন পরিষদে মুক্তিযোদ্ধের যাদুঘর ও লাইব্রেরী উদ্ভোধন, বড়খার স্কুল ও কলেজে চারতলা বিশিষ্ঠ ভবনের ফলক উন্মোচন, বাশতলা হকনগর স্মৃতিসৌধ এরিয়াতে কৃষ্ণচুরা গাছের চারা রোপন ও আধিবাসি শিক্ষার্থীদের মাঝে শিক্ষা উপকরণ বিতরণ করেছেন জেলা প্রশাসক মো.সাবিরুল ইসলাম।

মঙ্গলবার দিনব্যাপী উপজেলার বিভিন্ন অনুষ্ঠানের যোগদেন জেলা প্রশাসক মো.সাবিরুল ইসলাম সকালে বাংলাবাজার ইউনিয়ন পরিষদে মুক্তিযোদ্ধের যাদুঘর ও লাইব্রেরী উদ্ভোধন কালে তিনি বলেন, বর্তমান সরকার প্রতিটি ইউনিয়ন পরিষদে একটি করে মুক্তিযোদ্ধের লাইব্রেরী ও যাদুঘর স্থাপনের মাধ্যমে আমাদের আগামী প্রজন্মের জন্য মুক্তিযোদ্ধের স্মৃতি স্বরণ রাখার জন্য মাধ্যম স্থাপন করা হচ্ছে মুক্তিযোদ্ধ যাদুঘর ও লাইব্রেরী।

মুক্তিযোদ্ধের বীর শহীদ রেখে যাওয়া স্মৃতি বাঁধাই করে রাখার ব্যাবস্থা করব । দুপুরে বড়খাল স্কুল ও কলেজের চারতলা বিশিষ্ঠ ভবনের ফলক উন্মোচণ করে তিনি বলেন, নারী শিক্ষার ক্ষেত্রে নারীদের অংশগ্রহনের সকল ক্ষেত্রে জবাবদিহিতা নিধারিত করতে হবে। স্থানীয় সরকার অবকাঠামোকে আরো গতিশীল ও শক্তিশালী করতে সকলকে আন্তরিক ভাবে এক সাথে কাজ করে যেতে হবে।

শিক্ষার্থিদের ভবিষ্যৎ নির্মানের জন্য শিক্ষা সবচেয়ে গুরুত্ব পুর্ণ ভূমিকা রাখে। তাই সমাজের সর্বস্থরের জনতাকে শিক্ষার উপর নজরধারী করতে হবে আমাদের আগামী দিনের প্রজন্মকে স্ব শিক্ষায় শিক্ষিত করতে হবে। তথ্য প্রযুক্তিতে নিজেকে দক্ষ কারিগড় হিসেবে গড়ে তুলতে হবে এজন্য নারী শিক্ষার ওপর জোরধার করা হয়েছে।

নারীর ক্ষমতায়ন নারীশিক্ষা ও নারীদের উন্নয়নে বাংলাদেশ আজ বিশ্ব দরবারে একটি রোল মডেল হিসেবে পরিচিতি লাভ করেছে। মঙ্গলবার দুপুরে কলেজের অধ্যক্ষ নজির আহমেদের সভাপতিত্বে কলেজের পরিচালনা কমিটির সদস্য ইউনিয়ন বিএনপির (একাংশ) সাধারণ সম্পাদক উস্তার আলীর পরিচালনায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপরোক্ত কথা বলেন জেলা প্রশাসক মো.সাবিরুল ইসলাম।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসকের সহধর্মিনী বেগম লুবনা আফরোজ, বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ ইদ্রিস আলী বীরপ্রতীক, উপজেলা নির্বাাহী কর্মকর্তা কাজী মহুয়া মমতাজ, সহকারী কমিশনার (গোপনীয়) মঞ্জুরুল আলম, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট গাজালা পারভিন রুহি, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মো.রেনু মিয়া, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ছালেহা বেগম,কলেজের দাতা সদস্য রুটারিয়ান এম আবুল হোসেন, সহকারী অধ্যাপক জহিরুল ইসলাম ভুইয়া,এস আই হাবিবুর রহমান,নজির হোসেন,রুবেল মিয়া।

মুক্তিযোদ্ধ যাদুঘর উদ্ভোধন কালে উপস্থিত ছিলেন বাংলাবাজার ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জসিম মাষ্টার , উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার শফর আলী, মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল খালেক, আক্তার হোসেন, আব্দুর রশিদ, আব্দুল আহাদ, ইলিয়াছ মিয়া, সোনা মিয়া, তাজুদ আলী, ইউপি সদস্য আবু রায়হান রবিন, খোরশেদ আলম, ধন মিয়া, আবু হানিফ,উমর ফারুক, মোশারফ হোসেন, আলাউদ্দিন, রেনুয়ারা বেগম, মিনারা বেগম,মিনারা বেগম,আয়শা আক্তার আদিবাসি চেয়ারম্যান লুইস চাকমা, বিজিবি অবসর সদস্য তরুন মারাক প্রমুখ।

Top