চট্টগ্রামে চেক প্রতারণায় এক ব্যবসায়ীর তিন মাসের কারাদন্ড ও ১লক্ষ ৬৯ হাজার টাকা অর্থদন্ড

download-1-2.jpg

আদালত প্রতিবেদক :
বাংলাদেশ কমার্স ব্যাংক লিঃ, জুবলী রোড শাখার দায়েরী চেক প্রতারণার মামলায় এক ব্যবসায়ী ৩ মাসের কারাদন্ড এবং চেকের সমপরিমাণ অর্থদন্ড প্রদান করেছেন চট্টগ্রামের বিজ্ঞ ৩য় যুগ্ন মহানগর দায়রা জজ মোছাম্মৎ বিলকিছ আকতার-এর আদালত উক্ত রায় প্রদান করেন । উল্লেখ্য, চট্টগ্রামের চান্দগাঁও থানাধীন চান্দগাঁও আবাসিক এলাকার মরহুম আলহাজ্ব সুলতান মাহমুদ এর পুত্র জাবেদ-বিন-মাহমুদ বাংলাদেশ কমার্স ব্যাংক লিঃ জুবলি রোড শাখা,চট্টগ্রাম থেকে বিনিয়োগ গ্রহণ করেন । উক্ত পাওনা পরিশোধে বাদী ব্যাংককে আসামীর পরিচালনাধীন ও মালিকানাধীন কাতালগঞ্জ আবাসিক এলাকাধীন পাঁচলাইশ থানাস্থ ব্যবসা প্রতিষ্ঠান মেসার্স ইভান ব্রাদার্স-এর নামীয় হিসাবের বিপরীতে ১ লক্ষ ৬৯ হাজার টাকার ১টি চেক প্রদান করেন। আসামীর প্রদত্ত চেক তার কথামত বাদী ব্যাংকের নামীয় হিসাবে উপস্থাপন করলে উক্ত চেক ডিজঅনার হয়ে ফেরত আসে। মামলার বাদী প্রতিষ্ঠান এই আসামীর বিরুদ্ধে বিগত ২৪/০৫/২০১০ ইং তারিখে এন.আই এ্যাক্ট এর ১৩৮ ধারায় বিজ্ঞ চীফ মেট্টোপলিটন ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে মামলা দায়ের করেন। পরবর্তীতে মামলা বিচার নিষ্পত্তির জন্য বিজ্ঞ ৩য় যুগ্ন মহানগর দায়রা জজ মোচ্ছামৎ বিলকিছ আকতার-এর আদালতে বদলি হয়। বিজ্ঞ আদালত এন.আইএ্যাক্ট এর ১৩৮ ধারার অপরাধে আসামীর বিরুদ্ধে চার্জ গঠন করেন। চার্জ গঠনের পর বাদীর সাক্ষীর জেরা জবানবন্দি গ্রহণ ও যুক্তি তর্ক উপস্থাপন শেষে মামলায় আসামীর বিরুদ্ধে বাদীর আনীত অভিযোগ সন্দেহাতীতভাবে প্রমানিত হওয়ায় আসামীকে ২৬/০৭/১৮ ইং তারিখের ৩ মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড ও চেকের সমপরিমাণ ১ লক্ষ ৬৯ হাজার টাকা অর্থদন্ডের আদেশ দেন। উল্লেখ্য, আসামী পলাতক থাকায় গ্রেফতার, কিংবা আত্মসমর্পণের দিন থেকে সাজার মেয়াদ কার্যকর হবে। বাদী পক্ষে মামলাটি পরিচালনা করেন- এডভোকেট এ.এম জিয়া হাবীব আহসান, এডভোকেট এ.এইচ.এম জসিম উদ্দিন, এডভোকেট দেওয়ান ফিরোজ আহমদ, এডভোকেট মোঃ হাসান আলী প্রমুখ। রাষ্ট্র পক্ষে মামলা পরিচালনা করেন এডভোকেট মোঃ রাশেদুল আলম, এপিপি ।

Top