চাঁপাইনবাবগঞ্জে শিশু হত্যায় দায়ে নারীর ফাঁসির আদেশ|

received_287124178758764.jpeg

সিফাতুল্লাহ, চাঁপাই জেলা প্রতিনিধি:
সামান্য স্বর্ণালংকারের লোভে চাঁপাইনবাবগঞ্জ শহরের নামোশংকরবাটি ফতেপুর মহল্লায় প্রতিবেশী দুই শিশু ৬ বছর বয়সী মালিহা ও ৭ বছর বয়সী সুমাইয়াকে খুনের চাঞ্চল্যকর মামলায় প্রতিবেশী লাকী খাতুন(২৩) নামে এক নারীকে ফাঁসির আদেশ দিয়েছেন আদালত।
সেই সাথে আদালত তাকে ২ লক্ষ টাকা জরিমানাও করে। এই মামলার অপর আসামী শহরের আঙ্গারিয়া পাড়ার রফিকুল ইসলামের ছেলে স্বর্ণ ব্যবসায়ী মিজানুর রহমান পলাশকে (৩১) চোরাই স্বর্ণ কেনার দায়ে ৩ বছরের বিনা শ্রম কারাদন্ড,১০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে ৬ মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করেছে আদালত।

নিহত শিশু মালিহা নামোশংকরবাটি ফতেপুর গ্রামের আব্দুল মালেকের (৩৪) মেয়ে ও সুমাইয়া একই মহল্লার মিলন রানার (৩৫) মেয়ে। লাকী ঐ মহল্লার ইব্রাহীম আলীর স্ত্রী। রোববার (৫আগষ্ট) দুপুরে চাঁপাইনবাবগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ শওকত আলী’র আদালতে আসামীদের উপস্থিতিতে এই দন্ডাদেশ প্রদান করেন। মামলার নথি সুত্রে ও সরকারী কৌসুলী আঞ্জুমান আরা বেগম জানান, ২০১৭ সালের ১২ ফেব্রুয়ারী বাড়ির নিকটের ছোট মনি বিদ্যা নিকেতনের প্লে শ্রেণির ছাত্রী মালিহা ও প্রথম শ্রেনীর ছাত্রী সুমাইয়া বিদ্যালয় থেকে বাড়ি ফেরার পর খেলতে বের হয়ে বেলা ১১টার দিকে নিখোঁজ হয়।

২দিন পর ১৪ ফেব্রুয়ারী বিকেলে প্রতিবেশী লাকীর বাড়ির একটি ঘরে খাটের নিচে দুটি পৃথক বস্তায় দুই শিশুর লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। এ ঘটনায় ঐ দিনই পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার হয় লাকী। এদিকে শিশু দুজন নিখোঁজের পরদিন ১৩ ফেব্রুয়ারী শিশু মালিহার পিতা সদর থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে একটি মামলা দায়ের করেন। মামলাটি পরে হত্যা মামলায় পরিবর্তিত হয়। গ্রেপ্তারের পর আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দীতে লাকী জানান, শিশু দুজনের গলা ও কানে সামান্য স্বর্ণালংকারের লোভে তিনি শিশু দুজনকে তার বাড়িতে ফুঁসলিয়ে ডেকে নিয়ে ঘুমের ঔষধ খাইয়ে আটকে রাখেন। তাদের স্বর্ণালংকার কেড়ে পলাশের নামোশংকরবাটি এলাকার স্মৃতি জুয়েলার্সে ২১ হাজার টাকায় বিক্রি করেন। শিশু দুজনকে ছেড়ে দিলে ঘটনাটি তারা প্রকাশ করে দিবে এই ভয়ে ১৪ তারিথ সকালে তিনি শিশু দুজনকে স্বাসরোধে হত্যা করে লাশ বস্তায় ভরে খাটের নিচে লুকিয়ে রাখেন।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সদর থানার তৎকালীন পরিদর্শক (তদন্ত) চৌধুরী জোবায়ের আহম্মেদ ২০১৭ সালের ৩০ এপ্রিল লাকী ও স্বর্ণকার পলাশের বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশীট দাখিল করেন। ১৬ জনের স্বাক্ষ্য গ্রহণ শেষে আদালত রোববার মামলার রায় ঘোষণা করেন। আসামী পক্ষে ছিলেন আ্যাড.সাদরুল আমিন।

Top