মাদ্রাসা শিক্ষক ইমরানের নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে শার্শার ধান্যখোলা গ্রামে মানববন্ধন কর্মসুচী পালন

received_2100342393559143.jpg

বেনাপোল(যশোর)প্রতিনিধি:
মাদ্রাসার শিক্ষক ইমরানের নিঃশর্ত মুক্তির দাবীতে মানববন্ধন কর্মসুচী পালন করলো যশোরের শার্শা উপজেলার ধান্যখোল গ্রামের সর্বস্তরের মানুষ। বিজিবি কর্তৃক মাদ্রাসার শিক্ষক ইমরানের আটক করায় এই কর্মসুচী পালন করে ক্ষোভ প্রকাশ করেছে গ্রাম বাসী। মানবন্ধনের কর্মসুচী সম্পর্কে জানতে গেলে গ্রামবাসী সাংবাদিকদের বলেন, গত বুধবার দিন গত রাত ১০ টার দিকে বিজিবি’র একটি টহল দল মাদ্রাসার শিক্ষক ইমরান(৩২)কে ফেন্সিডিল দিয়ে মিথ্যা মামলায় আটক করে। তারা বলেন ঐ দিন শিক্ষক ইমরানের পাশের বাড়ীতে কয়েকজন ছাত্রকে শিক্ষা প্রদান শেষে বাড়ী ফিরছিলেন এসময় আচমকা ধান্যখোলা ক্যাম্পের একটি টহলদল ইমরানকে থামিয়ে ক্যাম্পে নিয়ে যায়,ভয়ে গ্রামবাসী ইমরানের আটকের বিষয়ে জানার চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়।

বৃহস্পতিবার দিবাগত ভোর ৪টার দিকে ধান্যখোলা ক্যাম্প কমান্ডার মোঃ শফি একদল বিজিবি সাথে নিয়ে মাজের পাড়া ধান্যখোলা হাসান মেম্বারের বাড়ীর চারিপাশে অবস্থান নেয়। ঐ সময় ৩নং বাহাদুরপুর ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ড মেম্বার হাসান কে ডেকে পাঠায়। মেম্বারের বাড়ীর পাশে রাস্তার ধারে ডেকে নিয়ে ফেন্সিডিলের একটি কালো প্লাস্টিক ব্যাগ দেখিয়ে ক্যাম্প কমান্ডার শফি বলেন ফেন্সিডিলের এই চালানটি ইমরান পাশ্ববর্তী দেশ ভারত থেকে নিয়ে আসে,সেই জন্য তাকে আটক করা হয়েছে।

কিন্তু গ্রামবাসী ইমরানের আটকের ব্যাপারটি বিজিবি’র সাজানো নাটক বলে মানববন্ধন কর্মসূচীতে জানিয়েছেন। এদিকে ইমরানের আটকের ব্যাপারে স্থানীয় সাংবাদিকরা ধান্যখোলা ক্যাম্পে গেলে ক্যাম্প কমান্ডার সুবেদার শফি গ্রাম বাসীর বক্তব্য সত্যে নয় বলে জানিয়েছেন। বৃহস্পিতবার দিনগত রাত ১.৩০মি: দিকে ক্যাম্পের একটি টহলদল মাজের পাড়া ধান্যখোলা গ্রামে টহল দেওয়ার সময় ভারত-বাংলাদেশের সীমান্ত এলাকায় সুধু আলো দেখতে পায়। সেই সুত্র ধরে টহল দলটি সেখানে পৌছালে বিজিবি’র উপস্থিতি টের পেয়ে ফেন্সিডিলের চালানটি নিয়ে মাজের পাড়া ধান্যখোলা গ্রামে ঢুকে পড়ে। বিজিবি’র তাড়া খেয়ে তিনজন পালিয়ে গেলেও ইমরান বিজিবি’র হাতে ধরা পড়ে। ইমরানকে ক্যাম্পে নিয়ে তার স্বীকারোক্তি মোতাবেক রাস্তার পাশ থেকে ভোর বেলার দিকে ফেন্সিডিলের চালানটি উদ্ধার করা হয়। এ ব্যাপারে আইননুসারে ইমরানকে ফেন্সিডিল সহ বেনাপোল পোর্ট থানায় সোপর্দ করা হয়েছে।

ইমরানকে নিঃশর্ত মুক্তি না দিলে পরবর্তীতে বৃহত্তর আন্দোলনের প্রস্তুতি নেওয়া হবে বলে গ্রাম বাসী সাংবাদিকদের জানিয়েছেন।

Top