মাতারবাড়ীতে এক গৃহবধূর রহস্য জনক মৃত্যু

download.jpg

অাবু বক্কর ছিদ্দিক , মহেশখালী:
মহেশখালী উপজেলার মাতারবাড়ীতে এক গৃহবধূর রহস্য জনক ভাবে মৃত্যু হয়েছে । জানা যায় গতকাল ২ অাগষ্ট বৃহস্পতিবার দুপুর ১২ টার সময় মাতারবাড়ী ইউনিয়নের ৭ ওয়ার্ড়ের মাইজ পাড়া গ্রামের তালেব অালীর পুত্র রইজ উদ্দিনের স্ত্রী এক সন্তানের জননী মুশরফা বেগমের রহস্য জনক ভাবে মৃত্যু হয়েছে । সরেজমিনে গিয়ে বিভিন্ন তথ্যের ভিত্তিতে জানাগেছে , সকালে ঘরের মরিচের বিষয় কে কেন্দ্র করে স্বামী – স্ত্রীর মাঝে ঝগড়া হয় , এ সময় সকালে ভাত খেয়ে যার যার কাজে চলে যায় , এদিকে রইজ উদ্দিনের স্ত্রী মুশরফা বেগম তার রোমে ঢুকে ভিতর থেকে দরজা লক করে ঘুমাতে যায় বলে জানায় রইজ উদ্দিনের ছোট ভাইয়ের স্ত্রী শামীমা অাক্তার । দুপুর ১২ টার সময় মুশরফার স্বামী রইজ উদ্দিন বাড়ীতে এসে তার স্ত্রীকে ডাকাডাকি করলে রুমের ভিতর থেকে কোন সাড়া শব্দ না পেয়ে তার ছোট ভাইয়ের স্ত্রী শামীমা কে দিয়ে রইজ উদ্দিনের স্ত্রীকে ডাকতে বলে , তখন শামীমা অাক্তার রইজ উদ্দিন কে বলেন অাপনারা ঝগড়া দিয়েছেন তাই হয়তো রাগ করে দরজা বন্ধ করে ঘুমিয়ে অাছে অাপনি বাহির থেকে ঘুরে অাসুন পরে ঠিক হয়ে যাবে । তখন রইজ উদ্দিন বাড়ী থেকে অাবার বাজারে চলে যায় , সে চলে যাওয়ার অনেক্ষণ পরেও মুশরফা দরজা না খোলায় শামীমা এবং তার দেবর অর্থাৎ রইজ উদ্দিনের ছোট ভাই তাদের সন্দেহজনক হওয়ায় তারা ঐ রুমের পুর্ব দিকে টয়লেটের উপর দিয়ে রুমে প্রবেশ করে । এ সময় রইজ উদ্দিনের স্ত্রী মুশরফা টয়লেটের দরজার গ্রেটবিম এর সাথে রশিতে জুলন্ত অবস্থায় দেখতে পায় বলে জানান রইজ উদ্দিনের ছোট ভাইয়ের স্ত্রী শামীমা অাক্তার । এদিকে মুশরফা কে পরিকল্পিত ভাবে হত্যা করে রশিতে জুলিয়ে নাটক সাজিয়েছে বলে জানান মুশরফার পিতা সৈয়দ উল্লাহ । নিহত মুশরফার পিতা সৈয়দ উল্লাহ অভিযোগ করে বলেন , অামার মেয়ে মুশরফা অাজ থেকে তিন দিন অাগে অামাকে ফোন করে বলেছিল যে , তার স্বামীর সাথে ঝগড়া হয়েছে এবং তাকে বেশী মারধরও করেছে । ঘটনার দিন বৃহস্পতিবার সকাল অাটটার সময়ও তার( মুশরফার ) ভাবির সাথে মোবাইলে কথা হয় , তখন মুশরফা তার ভাবিকে বলেছিল অামি অার স্বামীর নির্যাতন সহ্য করতে পারছি না তোমরা অামাকে নিয়ে যাও । একই দিন দুপুর দেড়টার সময় তারা মুশরফার মৃত্যুর সংবাদ পেয়ে ছুটে অাসেন মাতারবাড়ীতে । নিহত মুশরফার পরিবারের অভিযোগ মুশরফা কে তার স্বামী এবং শশুর বাড়ীর লোকজন মিলে তাকে পরিকল্পিত ভাবে হত্যা করেছে , মুশরফা হত্যার বিচার চেয়েছেন তার পিতা সৈয়দ উল্লাহ । এদিকে বিকাল চার টার সময় নিহতের ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন কক্সবাজার জেলা পরিষদের মহিলা সদস্য মাষ্টার মশরফা জন্নাত । মশরফা জন্নাত এর কাছে জানতে চাইলে তিনি এ প্রতিবেদক কে বলেন , এখানে এসে সব কিছু দেখে মনে হয়না যে তিনি অাত্বহত্যা করেছে , অামার মনে হয় তাকে হত্যা করে পরে রশিতে জুলিয়ে রেখে ঘটনা ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করার চেষ্টা চালাচ্ছে । তার পরেও হত্যা না অাত্বহত্যা সব কিছু নির্ভর করবে ময়না তদন্তের উপর । বিভিন্ন সূত্র জানা গেছে নিহত মুশরফা পরকিয়ার বলি হয়েই খুন হয়েছেন । নিহত মুশরফার স্বামী রইজ উদ্দিন অারেকটি মেয়ের সাথে গোপনে সম্পর্ক করে ছিল , এ খবরটি তার স্ত্রী নিহত মুশরফা জেনে ফেলায় তাকে মরতে হয়েছে বলে জানান কয়েকজন স্থানীয় বাসিন্দা । এ ব্যাপারে মাতারবাড়ী পুলিশ ক্যাম্পের এস অাই অামিনুর রহমান বলেন , অামি লাশের সুরুত হাল তৈরি করে ময়না তদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে । ময়না তদন্তের রিপোর্ট হাতে পেলেই বলতে পারব হত্যা নাকি অাত্বহত্যা । তিনি নিহতের সুরুত হালের সময় তার পিঠে এবং মাথায় জখমের চিহ্ন রয়েছে বলেও জানান । নিহতের স্বামী রইজ উদ্দিনের পিতা তালেব অালী কে জিজ্ঞাসা বাদের জন্য অাটক করে থানায় প্রেরন করা হয়েছে এবং নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে মামলা করলে তাকে জেল হাজতে পাঠানো হবে বলে জানান এস অাই অামিনুর রহমান । নিহত মুশরফা বেগম ধলঘাটা ইউনিয়নের সুতুরিয়া এলাকার সৈয়দ উল্লাহ’র মেয়ে

Top