“নানির লাশ দেখতে যাওয়ার পথে নিজেই লাশ হলো কাজী সিরাত

received_139807480266698.jpeg

সাখাওয়াত শাহীন:
রোববার রাতে মারা গেছে নানী। গতকাল সোমবার সকালে নানীর লাশ দেখতে বাড়িতে যাওয়ার জন্য ক্যাম্পাস থেকে বের হয়েছিল চট্টগ্রাম আন্তর্জাতিক ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (আইআইইউসি) ছাত্র এস এম আমিরুল ইসলাম সিরাত (২২)। রেল লাইন অতিক্রম করার সময় চট্টগ্রামমুখী মেঘনা ট্রেনের ধাক্কায় মৃত্যু হয়েছে তার। মর্মান্তিক এ ঘটনাটি ঘটেছে কুমিরায় আইআইইউসি ক্যাম্পাস থেকে এক কিলোমিটার দূরে। সিরাত ছিল এ বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের দ্বিতীয় সেমিস্টারের ছাত্র। তার মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত ভিসি ও ট্রাস্টি বোর্ড। তিন দিনের শোক ঘোষণা করেছে বিশ্ববিদ্যালয়। নিহত সিরাত খাগড়াছড়ি জেলার মানিকছড়ি উপজেলার কাজি বাড়ীর যুগাচুরা গ্রামের আবদুল গফুর ফারুকের পুত্র। তার নানার বাড়ী হচ্ছে কক্সবাজার জেলার চকরিয়া উপজেলার বদর খালী ইউনিয়নে।ছোট বেলায় সে তার মাকে হারায়। তখন থেকে সে নানার বাসায় বড় হয়। জোহর নামাজের পর কেন্দ্রীয় মসজিদ প্রাঙ্গণে সিরাতের জানাযা অনুষ্ঠিত হয়। এতে শিক্ষক–কর্মকর্তা–ছাত্র জানাযায় অংশগ্রহণ করেন। জানাযা শেষে মরদেহ গ্রামের বাড়িতে অর্থাৎ বদর খালীতে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ে তার সহপাঠী তায়েফ জানান, সিরাতের নানি ইন্তেকাল করেছে বলে রবিবার রাতে তার কাছে খবর আসে। সিরাত বাড়ি যাওয়ার জন্য বের হয়ে সকাল ৯টায় রেললাইন দিয়ে মেইন গেইটের দিকে যাচ্ছিল। যাওয়ার পথে ফোনে কথা বলছিল। ছিল খুব টেনশনে। এসময় চাঁদপুর ছেড়ে আসা আন্তঃনগর মেঘনা ট্রেনেই কাটা পড়ে সে।
আইআইইউসি‘র গনমাধ্যম ও যোগাযোগ কর্মকর্তা মোস্তাক খন্দকার জানান, দুর্ঘটনার খবর পেয়ে আইআইইউসি’র ভারপ্রাপ্ত ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোহাম্মদ আলী আজাদী, বিভিন্ন অনুষদের ডীনগণ, বিভাগীয় চেয়ারম্যানগণ, প্রক্টর, প্রভোস্ট এবং ডিভিশনের পরিচালকবৃন্দ ঘটনাস্থলে ছুটে যান। সিরাতের মর্মান্তিক মৃত্যুতে আইআইইউসি’র বোর্ড অব ট্রাস্টীজের সদস্যবৃন্দ, ভারপ্রাপ্ত ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোহাম্মদ আলী আজাদী গভীর শোক প্রকাশ করেছেন। আইআইইউসি’র সম্মেলন কক্ষে ভারপ্রাপ্ত ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোহাম্মদ আলী আজাদীর সভাপতিত্বে এক জরুরি সভায় তিন দিনের শোক ঘোষণা করা হয়।

Top