গুলিবিদ্ধসহ আহত-২০ বঙ্গোপসাগরে ফিশিং ট্রলার ডাকাতি

received_1769241549797999-1.jpeg

আবদুর রাজ্জাক,কক্সবাজার:
গভীর বঙ্গোপসাগরে এফ.বি আল মদিনা নামক মহেশখালীর এক ফিশিং ট্রলারে জলদস্যুরা হামলা চালিয়ে মাঝি-মাল্লাদের গুলির্বষণ ও মারধর করে নগদ ২’লক্ষ টাকা,মোবাইল ফোন ও ট্রলারের মূল্যবান জিনিষ-পত্র লুটপাট করে নিয়ে যায়। এসময় জলদস্যুদের গুলিতে ছোট মহেশখালীর ৫ জেলে গুলিবিদ্ধ হয়েছে। এছাড়া জলদস্যুদের মারধরে আরো ১৫ জনেরও বেশি জেলে আহত হয়েছে। গতকাল শনিবার (২৮ জুলাই) দুপুর ২টার দিকে বঙ্গোপসাগরে ১৬ বিউ নামকস্থানে ছোট মহেশখালী ইউনিয়নের রেজাউল করিম মেম্বারের মালিকানাধীন এফ.বি আল মদিনা ট্রলারটি ডাকাতির শিকার হয়। গুলিবিদ্ধরা হলেন,ছৈয়দ নুর মাঝি, আব্দু জলিল, ছৈয়দ হোছন,শাহেদ, রেজাউল করিম প্রকাশ মনু। আহতদের অবস্থা আশংঙ্কাজনক হওয়ায় কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদেরকে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে প্রেরণ করেন।
আহত জেলেরা জানান, চিহ্নিত জলদস্যুরা তাদের কাছ থেকে ৫ লক্ষ টাকা চাদাঁ দাবী করে। তা দিতে অপারগতা প্রকাশ করায় জলদস্যুরা আমাদের উপর গুলির্বষণসহ বিভিন্ন ধারালো অস্ত্র,দা,কিরিচ ও লোহার রড় দিয়ে আঘাত করে ক্ষতবিক্ষত করেছে। পরে জলদস্যুরা আমাদের কাছ থেকে মাছ বিক্রির ২’লক্ষ টাকা,মোবাইল ফোন ও ট্রলারের মূল্যবান জিনিষ-পত্র লুটপাট করে নিয়ে যায়।
এ ব্যাপারে মহেশখালী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) প্রদীপ কুমার দাশ জানান, আহতদের উদ্ধার করে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। জলদস্যুদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়ার প্রক্রিয়া চলছে।

Top