কমলগঞ্জের আদমপুর ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ত্রান বিতরণে অনিয়মের অভিযোগ এনেছেন ৬ ইউপি সদস্য

IMG_20180626_202454_296.jpg

নির্মল এস পলাশ, কমলগঞ্জ প্রতিনিধি :
মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার আদমপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দাল হোসেন বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত এলাকার বন্যার্থদের ত্রানের চাল না দিয়ে নিজ পছন্দের লোকদের মাধ্যমে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্তদের চাল অন্য এলাকার লোকজনের মধ্য বিতরণ ও সেচ্চাচারিতার অভিযোগ এনে একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবরে। লিখিত অভিযোগের পর কমলগঞ্জ প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করেছেন আদমপুর ইউপি পরিষদের ৬ ইউপি সদস্য। মঙ্গলবার বিকাল ৫টায় এ সংবাদ সম্মেলন অনুষ্টিত হয়।
অভিযোগে জানা যায়,সম্প্রতি বন্যায় উপজেলার আদমপুর ইউনিয়ন এর ১,৩,৫,৬ ও ৮নং ওয়ার্ড সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়। বিভিন্ন গ্রামের ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত হয়েছে। বন্যা পরবর্তি বন্যা দুগর্ত মানুষের জন্য দুযোর্গ ও ত্রান মন্ত্রনলায়েমর মাধ্যমে কমলগঞ্জ উপজেলায় ৫০টন চাল বরাদ্দ হয়। বিভিন্ন ইউপিতে দুগর্তদের মধ্য ২০ কেজি করে চাল বিতরণ অব্যাহত রয়েছে। তার অংশ হিসাবে আদমপুর ইউনিয়ন পরিষদ ১৫টন চাল ত্রান হিসাবে আছে। কিন্তু ইউপি চেয়ারম্যান বিএনপি নেতা আব্দাল হোসেন তার মনগড়া ও নিজস্ব লোকদের মাধ্যমে তালিকা করে চাল বিতরনে অনিয়ম করছেন বলে ৬ ইউপি সদস্য অভিযোগ করেছেন। ১নং ওয়ার্ডের ইউপি জুমের আলী বলেন, চেয়ারম্যান নামমাত্র কয়েকজনের ক্ষতিগ্রস্ত তালিকা দেয়ার তাকে বলেন। কিন্তু তার ওয়ার্ডে ক্ষতিগ্রস্ত লোক ১৫০জন। কাকে রেখে কাকে দিবেন এ জন্য তিনি নাম দেননি। এভাবে চেয়ারম্যান বাকী ওয়ার্ডগুলোর ইউপি সদস্যদের তালিকা করার দায়িত্ব দেননি। এতে করে প্রকৃত ক্ষতিগ্রস্ত লোক ত্রান পাচ্ছে না। চেয়ারম্যান বিএনপি নেতাদের মাধ্যমে অক্ষতিগ্রস্থ লোকদের চাল বিতরণ করছেন। মঙ্গলবার প্রায় ৫শত জনকে ২০ কেজি চাল দিলেরও তারা বেশি ভাগ লোক বন্যায় আক্রান্ত হয়নি বলে ইউপি সদস্য মনিন্দ্র সিংহ জানান। আদমপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দাল হোসেনের এমন অনিয়মের অভিযোগ এনে কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার মােহাম্মদ মাহমুদুল হকের নিকট লিখিত অভিযোগ দাখিল করেছেন। পাশাপাশি কমলগঞ্জ প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করেছেন। সংবাদ সম্মেলনে তারা অভিযোগ করেন বতর্মানে ত্রানের কোন অভাব নেই। সরকার তুলনা মুলক যতেষ্ট চাল ওত্রান বরাদ্ধ করেছে। কিন্তু চেয়ারম্যানের সেচ্চাচারিতা ও তালিকায় অনিয়মের কারনে সরকারে বদনাম হচ্ছে। তারা দ্রুত বিষয়টি তদন্ত করে প্রযোজনীয় ব্যবস্থা ও প্রকৃত ক্ষতিগ্রস্তদের মধ্য ত্রান বিতরন করার দাবী জানিয়েছেন।
সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন ১নং ওয়ার্ডের সদস্য জুমের আলী। উপস্খিত ছিলেন ইউপি সদস্য মনিন্দ্র কুমার সিংহ,বশির বক্স, রেহেনা আক্কার,সামছুর নাহার ও সনধ্যা রানী সিংহা।

Top