ওরা শিক্ষা বঞ্চিত পথশিশু

IMG_20180627_032107.jpg

অাফফান ইয়াসিন : .
ছোট বেলায় অ,অা,ক,খ,A,B পড়েছি। একটু বড় হয়ে প্রবাদ-প্রবচনের সাথেও পরিচয় হয়ে গেল। শত শত প্রবাদ-প্রবচন মুখস্থ করেছিলাম।অামাদের বর্তমান সময়ের হাল-চাল দেখে নিজেকে প্রশ্ন করতে ইচ্ছে হয়, প্রবাদ-প্রবচনগুলো কি বুঝে পড়েছিলাম? না, মনে হয় বুঝে পড়িনি। পরীক্ষায় পাশ করার জন্য পড়েছিলাম। নিজে নিজেই উত্তর খুঁজে পেলাম, পরীক্ষায় পাশ করার জন্য তো এত প্রবাদ-প্রবচন মুখস্থ করতে হয়না। তাহলে কেন পড়েছিলাম? নিশ্চিত শিক্ষিত হওয়ার জন্য। না, এটাওতো হয় না। কারণ, শিক্ষিত ব্যক্তির সংজ্ঞা হলো ” যে ব্যক্তি শিক্ষা দ্বারা সংস্কার প্রাপ্ত, সেই শিক্ষিত”। তাহলে কেন এত প্রবাদ-প্রবচন পড়লাম? থাক এই প্রশ্নটা পাঠকের কাছেই রেখে দিলাম। শত শত প্রবাদ-প্রবচন থেকে ২ টি প্রবাদ-প্রবচন চয়ন করলাম। ১. শিক্ষাই জাতির মেরুদণ্ড।২. জ্ঞানই শক্তি। অামাদের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শিক্ষার জন্য যাবতীয় ব্যবস্থা করেছেন। এভাবেও বলা যায় যে, অামাদের সরকার শিক্ষার ব্যাপারে সচেতন। শুধু কি সরকার সচেতন হলেই চলবে? অামাদের কি কোন দায়িত্ব নেই? অামাদের চোখের সামনে, যেই বয়সটায় বাচ্চারা বই-খাতা নিয়ে স্কুলে থাকার কথা, সেই বয়সটায় তারা বিভিন্ন গ্যারেজ, কারখানা, কারওয়াশ, হোটেল-রেস্টুরেন্ট,লেগুনা,বাসের সহায়ক হিসেবে কাজ করছে। মদ,জুয়া,ইয়াবা ইত্যাদি নেশায় অাসক্ত হয়ে ধ্বংসের দিকে পতিত হচ্ছে। অাবার কেউ কেউ হকার ও কুলির কাজে নিজেকে জড়িয়ে নিচ্ছে। এটাকে কি জাতির মেরুদণ্ড বলব? কেননা, অাজকের শিশু অাগামী দিনের ভবিষ্যৎ। শত শত প্রবাদ-প্রবচন থেকে শুধু ২টি নিলে হবে না। অারও ১টি নিয়ে দেখি ” পরিশ্রম সৌভাগ্যের প্রসূতি”।হ্যাঁ, এইতো পেয়ে গেলাম। অাজ অামাদের ছোট ছোট ছেলে -মেয়েরা তো এই কাজটিই করছে। তারা পরিশ্রম করে সৌভাগ্যে/ সফলতা অর্জণ করবে। অাসলে কি ব্যপারটা এমন? তাহলে, ১জন রিকশাচালকের মত এত পরিশ্রম তো অার কেউ করে না।(রিকশা চালক বা পেশাকে ছোট করি নাই)। তার সফলতা কোথায়?
তাই, অামাদের সবার উচিত প্রত্যেকের স্থান থেকে অামাদের চারপাশে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা অবহেলিত, ধলিত,নিষ্পেষিত ছোট ছোট ছেলে-মেয়েদের শিক্ষার প্রতি উৎসাহ, উদ্দিপনা দেওয়া। তাহলেই, জাতির মেরুদণ্ডের ফাউন্ডেশন শক্তিশালি হবে।।
.
শিক্ষার্থী: চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়

Top