চকরিয়ায় শ্বশুরবাড়ীতে গৃহবধূর ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধার

FB_IMG_1529586050606.jpg

সাঈদী আকবর ফয়সাল, চকরিয়া:
চকরিয়ায় শাশুড় বাড়ির বিমের সাথে ঝুলন্ত অবস্থায় নয়ন মনি রোহানা (২৫) নামের গৃহবধূর মৃতদেহ উদ্ধার করেন পুলিশ।
বৃহস্পতিবার (২১ জুন) সকাল ১০টার দিকে ডুলাহাজারা ইউনিয়নের (৯নং ওয়ার্ড) রংমহল এলাকার বসতবাড়ি থেকে তাকে উদ্ধার করা হয়। শাশুড় বাড়ির লোকজন গলায় ওড়না পেঁচিয়ে ঘরের বিমের সাথে ঝুলে আত্মহত্যা করেছে জানালেও গৃহবধূর পিতৃপক্ষ পরিকল্পিত হত্যা বলে দাবি করেন।
খবর নিয়ে জানা যায়, বিগত সাত বছর পূর্বে রংমহল এলাকার আব্দুল গফুর প্রকাশ গফুর মিস্ত্রীর পুত্র রমজান আলীর সাথে প্রেমের সম্পর্কে শরিয়ত মোতাবেক বিয়ে হয় একই ইউনিয়নের উলুবনিয়া গ্রামের শাহাব মিয়ার কন্যা নয়ন মনি রোহানার সাথে। বিয়ের পর তাদের সংসার স্বাভাবিক ভাবে চলছিল এবং তাদের ঘরে বর্তমান ৬ বছর বয়সী একটি পুত্র সন্তান রয়েছে।
বিগত কয়েকমাস ধরে স্বামী রমজান আলী মাছ ব্যবসার কাজে চট্টগ্রামের পটিয়ায় স্ত্রী-পুত্র নিয়ে ভাড়া বাসায় থাকতেন। ওখানে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে মনোমালিন্য হয় এবং স্ত্রী রোহানাকে মারধর করতেন। এর কারণ হিসেবে প্রতিবেদককে স্বামীর মধ্যপান ও স্ত্রীর পরকিয়ার বিষয় জানায় রংমহল এলাকার লোকজন।
গত দু’দিন আগে স্ত্রী রোহানা পটিয়ার ভাড়া বাসা থেকে রাগ করে বাপের বাড়ি উলুবনিয়ায় চলে আসতে পথ আটকায় তার শশুর গফুর মিস্ত্রী। তার পুত্রের উপযুক্ত বিচার করবে আশ্বাস ও পুত্রবধূকে শান্তনা দিয়ে শশুড় বাড়ি রংমহলে নিয়ে আসেন। পরদিন স্বামী রমজান আলী তার বসতবাড়ি রংমহলে ফিরে এসে স্ত্রীকে মারধর করে।
এসময় পুত্রবধূর গায়ে হাত তুলার দায়ে পুত্রকেও মারধর করে শাস্তি দেন শাশুড়। বুধবার রাতে ৬ বছরের পুত্রকে নিয়ে একা দরজাবদ্ধ করে ঘুমিয়ে গেলে পরদিন ভোরে শয়ন কক্ষে ঝুলন্ত মৃতদেহ দেখতে পায় শাশুড় বাড়ির সদস্যরা। স্থানীয় ইউপি সদস্য নুর নেওয়াজ বেগম ও জসিম উদ্দিন বিষয়টি জানতে পেরে পুলিশে খবর দেয়।
বৃহস্পতিবার সকাল ১০টার দিকে চকরিয়া থানার উপ-পরিদর্শক জুয়েল চৌধুরী এসে ঝুলন্ত অবস্থা থেকে মৃতদেহটি উদ্ধার করে সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরি করেন। এ প্রতিবেদনে মৃতদেহের উভয় পায়ে আঁছড়ের কাল দাগ পাওয়া গেছে উল্লেখ রয়েছে। নিহত গৃহবধূ চার মাসের অন্তঃসত্ত্বা বলে জানায় স্বজনরা।
খবর নিয়ে আরো জানা গেছে, সাম্প্রতিক চাঞ্চল্যকর ঘটনা ডুলাহাজারা ইউনিয়ন পরিষদ থেকে উদ্ধারর হওয়া মৃতদেহটি একই পরিবারের। রহস্য থেকে যায়, গত কয়েক বছরে ৪ ব্যক্তি অস্বাভাবিক মৃত্যু হয়েছে রংমহলের এ বসতভিটায়। গৃহবধূর ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধার ঘটনা সত্যতা নিশ্চিত করেন ডুলাহাজারা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নুরুল আমিন।

Top