নতুন সেনাপ্রধান লে. জেনারেল আজিজ

IMG_20180618_214000.jpg

ন্যাশনাল ডেস্ক.

বিজিবির সাবেক মহাপরিচালক লে. জেনারেল আজিজ আহমেদকে সরকার পরবর্তী সেনাপ্রধান হিসেবে নিয়োগ দিয়েছে। তিনি আগামী ২৫ জুন থেকে তিন বছরের জন্য এই পদে দায়িত্ব পালন করবেন। সোমবার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় তার নিয়োগ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করেছে। রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদের আদেশক্রমে যুগ্ম-সচিব মো. আবু বকর সিদ্দিক এই প্রজ্ঞাপনে স্বাক্ষর করেছেন।

আজিজ আহমেদ জেনারেল আবু বেলাল মোহাম্মদ শফিউল হকের স্থলাভিষিক্ত হচ্ছেন। আগামী ২৫ জুন তার মেয়াদ শেষ হচ্ছে।

ওইদিনই লেফটেন্যান্ট জেনারেল আজিজ আহমেদ জেনারেল হিসেবে পদোন্নতি নিয়ে সেনাপ্রধান হবেন।

আজিজ আহমেদ বর্তমানে সেনাবাহিনীতে কোয়ার্টার মাস্টার জেনারেলের (কিউএমজি) দায়িত্বে রয়েছেন। তার আগে আর্মি ট্রেইনিং অ্যান্ড ডকট্রিন্যাল কমান্ডের জিওসি ছিলেন তিনি।

এর আগে ২০১৬ সাল পর্যন্ত চার বছর বিজিবির মহাপরিচালকের দায়িত্ব পালন করেন আজিজ আহমেদ। তার সময়েই বিজিবি কল্যাণ ট্রাস্টের অধীনে সীমান্ত ব্যাংকের যাত্রা শুরু হয়।

বিজিবি প্রধানের দায়িত্ব নেয়ার আগে আজিজ আহমেদ কুমিল্লায় সেনাবাহিনীর ৩৩তম পদাতিক ডিভিশনের অধিনায়ক ছিলেন।

বিএমএর অষ্টম দীর্ঘমেয়াদি কোর্স শেষে ১৯৮৩ সালের ১০ জুন সেনাবাহিনীতে আর্টিলারি কোরে কমিশন পান আজিজ আহমেদ। কর্মজীবনে তিনি পার্বত্য চট্টগ্রামে জিএসও-৩ (অপারেশন্স), পদাতিক ব্রিগেডের ব্রিগেড মেজর, সেনাসদর প্রশিক্ষণ পরিদফতরের গ্রেড-২ এবং সেনাসদর, বেতন ও ভাতা পরিদফতরের গ্রেড-১ স্টাফ অফিসারের দায়িত্ব পালন করেন।

তিনি দীর্ঘদিন স্কুল অব আর্টিলারি এবং স্কুল অব মিলিটারি ইন্টিলিজেন্সের প্রশিক্ষক হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেন।

আজিজ আহমেদের পৈত্রিক বাড়ি চাঁদপুরে। তিনি সেখানেই ১৯৬১ সালে জন্মগ্রহণ করেন। বাবা ওয়াদুদ আহমেদ ছিলেন বিমান বাহিনীর সাবেক কর্মকর্তা।

ঢাকার মোহাম্মদপুর সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি এবং নটরডেম কলেজ থেকে এইচএসসি পাস করেন আজিজ আহমেদ।

Top