“মানুষ মানুষের জন্য ” একটি প্রাণ বাঁচালেন সুব্রত সিনহা

IMG_20180617_163117_584.jpg

নির্মল এস পলাশ, কমলগঞ্জ প্রতিনিধি
কয়েক দিনে টানা অতি বর্ষণে ও উজান থেকে ধলাই নদীতে নেমে আসা পানিতে কমলগঞ্জ উপজেলার প্রায় সব কটি ইউনিয়ন বন্যা কবলিত হয়ে । প্রথম দিকে বন্যার ভয়াবহতা কম হলেও ঈদের আগের দিনে কমলগঞ্জ চারিদিকে শুধু নদী ভাঙনের খবর পাওয়া যাচ্ছিল। ডুবে গেল স্কুল , কলেজ, মাদ্রাসা, উইনিয়ন পরিষদ, রাস্তাঘাট ঘরবাড়ী ফসলী জমি, মাছের খামার । মানুষ ছুটছে নিরাপদ আশ্রয়ের সন্ধানের খুজে । পানিবন্দি হাজারো মানুষ ভেঙে গেল অনেক ঘরবাড়ী, ভেসে গেল গরু, ছাগল, হাস – মুরগী । দক্ষিণ ঘোড়ামারা নদীরক্ষা বাঁধ ভেঙে পানি আসছে হু হু করে প্রবল স্রোতে। উপজেলা – কুরমা সড়ক দিয়ে ঘোড়ামারা চৌহমুনা থেকে কিছু খরচ নিয়ে বাড়ি ফিরছিলের ঘোড়ামারা গ্রামের ব্যাংক কর্মকর্তা সুব্রত সিনহা হঠাৎ বাঁচাও, বাঁচাও আত্মচিৎকার শুনতে পেলেন । একটু এগিয়ে দেখলেন কিছু লোক রাস্তায় দিয়ে টর্চলাইট দিয়ে দেখছে একটি ছেলে বন্যার পানির প্রবল স্রোতে ভেসে যাচ্ছে, চিৎকার করছে ।

স্রোতের ভয়ে কেউ বাঁচাতে পানিতে নামেনি। কারণ ছেলেটা ভাসছিল রাস্তা থেকে অনেক দূরে, মাটির ঠাঁই পাওয়া যাচ্ছিল না।তখন সাহস করে এই সুব্রত পানিতে ঝাঁপিয়ে পড়েন । একটি প্রাণ বাঁচানোর জন্য ।
তারপর স্রোতের তোড়ে সেও ডুবে যায়, কিন্তু পরক্ষণেই পানির ভেতর থেকে বেরিয়ে এসে সাঁতার কেটে কেটে ছেলেটার দিকে এগোতে থাকেন। সেই ছেলেটিও ভাসতে ভাসতে দুর্বল হয়ে হঠাৎ ভাগ্যক্রমে একটি বিদ্যুৎতিক খুটি পেয়ে তাকে আকড়ে ধরে। বাঁচার জন্য চিৎকার করতে থাকে। তখন সুব্রত সিনহা অনেক কষ্টে মৃতপ্রায় ছেলেটির কাছে গিয়ে তাকে ধরে কোনক্রমে সাঁতার কটে কেটে বড় রাস্তার ধারে নিয়ে আসে। তখন অনেকেই পরে টেনে তুলে দুজনকে নিরাপদ জায়গায় নিয়ে যায়। মুঠোফোনে সুব্রত সিনহার সাথে আলাপ করলে জানান , ছেলেটি চিৎকার করে ভেসে যাচ্ছে দেখে প্রথমে পানিতে নেমে কিছুদুর যাবার পর ভয়ে উঠে আসি, পরে আবার মনে সাহস যোগাই একটি প্রাণ যদি বাঁচে আবার ঝঁপিয়ে পড়ি পানিতে,যারা রাস্তায় ছিলেন টর্চলাইটের আলো দিয়ে সাহায্য করেছিলেন । ছেলেটাকে বাঁচাতে সক্ষম হই । তখন তাড়াহুড়ায় এমন সময়ে ছেলের নাম জানতে পারিনি, পরে জানতে পারেন ছেলেটি আদমপুর বন্দরগাঁও গ্রামের রেজাউল মিয়ার ছেলে হিরা মিয়া (১৮) । সুব্রত বলেন নিজের মানবিকতা বোধ থেকেই চেষ্টা করেছি মাত্র, বাঁচানোর মালিক সৃষ্টিকর্তা ।
শ্রীমঙ্গল ন্যাশনাল ব্যাংকের কর্মকতা সুব্রত সিনহার এমন মহান কাজে এলাকার সবাই বাহবা জানাচ্ছেন তাকে । মানবতা গর্বিত হলো এমন মহৎ কাজে ।

Top