কলেজ ছাত্রীসহ পঞ্চগড়ে সেনা সদস্য জনতার হাতে আটক।

received_192781851552696.jpeg

মোঃ নাজমুল হক,পঞ্চগড় থেকে:

পঞ্চগড়ে অসামাজিক কাজের অভিযোগে কলেজ ছাত্রীসহ সেনা সদস্যকে আটক করেছে এলাকাবাসী।
গত ৮জুন শুক্রবার সকালে পঞ্চগড় শহরস্থ কামাত পাড়ায় ঘটনাটি ঘটে। ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখা যায় পঞ্চগড় পৌরসভার ৫নং ওয়ার্ডের কামাতপাড়ায় মরহুম এ্যাড: রফিকউদ্দীনের ভাড়াটিয়া বাসায় আটক করে রেখেছে এলাকাবাসী। কামাতপাড়া গ্রামে ইদ্রীস আলীর কন্যা কলেজ ছাত্রীর সাথে পঞ্চগড় সদর উপজেলার কামাত কাজলদিঘী ইউনিয়নের গলেহা হাট দফাদার পাড়া গ্রামের মশিউর এর পূত্র আশরাফুল ইসলাম ইমন এর সাথে দুই বছর যাবত প্রেমের সম্পর্ক চলছিল। প্রেমের টানে গত কাল শুক্রবার সকালে কামাতপাড়াস্থ ঐ কলেজ ছাত্রীর বাড়ীতে অবস্থান করে। এ সময় প্রতিবেশিরা তাদেরকে বাইরে থেকে দরজা বন্ধ করে আটক করে রাখে।
কলেজ ছাত্রীর পিতা ইদ্রীয় আলী জানায় আশরাফুল বিয়ের প্রলোভনে আমার কন্যার দূর্বলতার সুযোগ নিয়েছে।

কলেজ ছাত্রী জানায়, আমার সাথে সেনা সদস্য আশরাফুলের দু বছর থেকে প্রেমের সর্ম্পক চলছে। আজ সকালে আশরাফুল আমার বাসায় আসলে আমরা ঘরের দরজা বন্ধ করে এক ঘরে ছিলাম। তাই এলাকাবাসী আমাদেরকে আটকে রেখেছে।
সেনা সদস্য আশরাফুলের পিতা জানায় আমার ছেলে আশরাফুল চট্টগ্রামের বায়োজিদ বোস্তামি ক্যান্টমেন্টে কর্মরত ছিল। ১ মাসের ছুটিতে সে বাড়ীতে এলে এ তাদের বাড়িতে যায় ফলে এ অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনার সৃষ্টি। বিষয়টি আপোষ হয়েছে।
৫নং ওয়ার্ডের পৌর কাউন্সিলর ওমর ফারুক জাহাঙ্গীর জানায়, ঘরে আবদ্ধ অবস্থায় তাদের এলাকাবাসী আটক করে আমাকে খবর দেয়। আমি তাদের এক ঘরে আটক অবস্থায় পেয়েছি। সেনা সদস্য আশরাফুল বিয়ের অনুমতি নিয়ে কলেজ ছাত্রীকে বিয়ে করবে। এ বিষয়ে একটি বিয়ের এ্যাফিডেভিট হয়েছে বলে জানায়।

Top