হ্নীলা শীর্ষ ইয়াবা ব্যবসায়ী তিন ইউপি সদস্যের রাজপ্রসাদে পুলিশের হানা

1528384759200_01.jpg

ফরহাদ আমিন:
টেকনাফে হ্নীলা ইউপি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রালয়ের তালিকাভুক্ত মাদক ব্যবসায়ী ৩ইউপি সদস্যের রাজপ্রসাদে অভিযান চালিয়েছে পুলিশ।জানা যায়, বুধবার বিকালে টেকনাফ মডেল থানার অফিসার ইনর্চাজ (ওসি) রনজিত কুমার বড়ুয়ার নেতৃত্বে পরিদশর্ক (তদন্ত)এসএম আতিক উল্লাহ, পুলিশ পরিদর্কশ অপারেশন রাজু আহমদ, সেকেন্ড অফিসার মহির উদ্দিন খাঁন,এসআই সাইদুল, বিবেকান্দ দেবনাথ, এএসআই সাইফুল ইসলামসহ পুলিশের একটি বিশেষ টিম অভিযান পরিচালনা করেন।হ্নীলা ইউপি সদস্য ফুলের ডেইল এলাকায় বাবুল মেম্বারের বাড়ীতে,রঙ্গিখালী এলাকার জামাল হোসেন মেম্বার,ও লেদা এলাকার নুরুল হুদা মেম্বারের রাজপ্রসাদে।ইয়াবা ব্যবসা করে আলাদীনের চেরাক হয়ে যায় রাতারাতি অডেল সম্পত্তির ও রাজপ্রসাদের মালিক বনে যায় এরা।
স্থানীয় সূত্র জানায়, মাদকবিরোধী অভিযান শুরুর পর থেকে ইয়াবা ব্যবসায়ীরা দুবাই, মালয়েশিয়া, ভারত ও ওমরা পালনের নামে সৌদি আরবে পালিয়ে গেছে। অনেকে ট্রলারযোগে সমুদ্রপথে মিয়ানমারে গিয়ে আশ্রয় নিয়েছে। আবার কেউ কেউ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর হাত থেকে রক্ষা পেতে রোহিঙ্গা শিবিরে আশ্রয় নিচ্ছে।
নিয়মিত অভিযানের অংশ হিসেবে হ্নীলা ফুলের ডেইল এলাকার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রালয়ের তালিকাভূক্ত ইয়াবা ব্যবসায়ী বাবুল মেম্বার , রঙ্গিখালী এলাকার জামাল হোসেন মেম্বার, ও লেদা এলাকার নুরুল হুদা মেম্বারের বাড়িতে হানা দেয় পুলিশ। তবে মাদক ব্যবসায়ীরা বাড়িতে না থাকায় তাদের কাউকেই আটক করা যায়নি।
টেকনাফ মডেল থানার ওসি রনজিত কুমার বড়ুয়া জানান, হ্নীলার ৩ ইউপি সদস্যদের ইয়াবার রাজ প্রসাদে হানা দেওয়া হয়েছে। মাদক ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে পুলিশের অভিযান চলছে তা অব্যাহত থাকবে। মাদক বন্ধ না হওয়া পর্যন্ত এই অভিযান চলমান থাকবে। যারা ইয়াবার টাকায় প্রসাদ ও দালান তৈরী করেছে তাদের এ সব প্রসাদ, বাড়ি, গাড়ি ও ব্যাংক ব্যালান্সের তথ্যও সংগ্রহ করা হচ্ছে। কেউই রেহায় পাবেনা ।

Top