গোপালগঞ্জে দেশীয় অস্ত্রশস্ত্রসহ আন্তঃজেলা ডাকাত দলের ৩ সদস্য গ্রেফতার

IMG_20180604_215727.jpg

প্রসীদ কুমার দাস(গোপালগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি) ঃ

গোপালগঞ্জের কাশিয়ানীতে ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের পশ্চিম রাতইল ব্রিজ নামক স্থান থেকে ডাকাত দলের ৩ সদস্যকে গ্রেফতার করেছে কাশিয়ানী থানা পুলিশ।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন (১) ঝিনাইদহ জেলার ৩ নং পানির ট্যাংকিপাড়া এলাকার রজবআলীর ছেলে আবির হাসান মানিক(৩৫), (২) রাজবাড়ি জেলার শ্রীপুর থানার কাসেম মন্ডলের ছেলে হান্নান মন্ডল (৩৮), (৩) রাজবাড়ি জেলার পাংশা থানার চর বিকরা গ্রামের খবির উল্লাহর ছেলে তোতা মন্ডল চন্দন (৪৬)।

এ ব্যাপারে কাশিয়ানী থানার অফিসার ইনচার্জ জনাব আজিজুর রহমান প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে “নিউজ ভিশন ৭১” কে বলেন, রবিবার দিবাগত রাত ৩ টার সময় ১০/১২ জনের একটি ডাকাতদল ডাকাতি করার উদ্দেশ্যে ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের পশ্চিম রাতইল ব্রিজ নামক এলাকায় গাছ ফেলে রাস্তা আটকায়। বিষয়টি পুলিশ জানতে পারলে অতিসত্বর ঘটনাস্থলে পৌছায়।

ঘটনাস্থলে পৌছে পুলিশ ও স্থানীয় জনগন ডাকাতদের ধাওয়া দিলে ডাকাতদল বিশ্বরোডের উত্তর দিকে রেল লাইনের উপর পৌছালে পুলিশকে লক্ষ্য করে রেল লাইনের পাথর নিক্ষেপ করতে শুরু করে এ সময় পাথরের আঘাতে ঘটনাস্থলে কনস্টেবল আজিজুল শেখ গুরুতর জখম হয়। তখন সরকারী অস্ত্র ও জান মাল রক্ষার্থে পুলিশ গুলি বর্ষন করিলে ডাকাত তোতা মন্ডল চন্দন (৪৬) হাঁটুতে গুলিবিদ্ধ হন এবং তাকে গ্রেফতার করা হয়।

পরবর্তিতে স্থানীয় লোকজন পাটক্ষেত ঘেরাও দিয়ে আবির হাসান মানিক (৩৫) ও হান্নান মন্ডল (৩৮) কে গনপিটুনী দিয়ে জখম অবস্থায় কাশিয়ানী থানা পুলিশের কাছে সোপর্দ করেন। ঘটনাস্থলে হতে ডাকাতির কার্যে ব্যবহৃত ২টি রামদা, ২টি ছোরা এবং একটি গাছ কাটার করাত উদ্ধার করা হয়েছে।

জখম প্রাপ্ত ডাকাতদের প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে রেফার্ড মতে গোপালগঞ্জ সদর হাসপাতালে প্রেরন করা হয়েছে এবং গুরুতর জখম প্রাপ্ত কনস্টেবল অাজিজুল শেখ কে উন্নত চিকিৎসার জন্য ফরিদপুর মেডিকেল হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়েছে।

তিনি আরো বলেন, উক্ত ডাকাতির ঘটনায় এবং উদ্ধারকৃত আলামতের বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হয়েছে এবং সহযোগী পলাতক অন্যান্য ডাকাতদের আটক করার লক্ষ্যে অভিযান অব্যাহত আছে।

Top