জৈন্তাপুরে দরবস্ত বাজারে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান; ৫৫ হাজার টাকা জরিমানা।

IMG_20180603_215257.jpg

এম.এম রুহেল,জৈন্তাপুর প্রতিনিধি:
সিলেটের জৈন্তাপুরের দববস্ত বাজারে আসন্ন রমযান মাসে দ্রব্যমূল্য মনিটরিং করছে উপজেলা প্রশাসন। নিত্যপণ্যের বাড়তি দাম নিলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। খাদ্যের গুণগতমান ও মূল্য ঠিক রাখা,ভেজালরোধ এবং সঠিক মাপ নিশ্চতের লক্ষ্যে জৈন্তাপুরে বাজার তদারকিতে মাঠে নেমেছে উপজেলা প্রশাসন। রবিবার বিকাল তিনটা থেকে জৈন্তাপুর উপজেলার দরবস্ত বাজারে তদারিক কাজ শুরু করেন।পবিত্র রমজান মাসকে সামনে রেখে বিভিন্ন হোটেল ,মুদি ও পণ্যের নিয়মিত পরিদর্শন করছেন, জৈন্তাপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মৌরীন করিম। তিনি ভেজাল ও নিন্মমানের খাদ্যদ্রব্য বিক্রিও অনিয়ম এর অভিযোগে বিভিন্ন হোটেলে মোবাইল কোর্ট ২০০৯ এর অধ্যদেশে ৫৫ হাজার টাকা জরিমানা করেন। এবং ভোক্তদের অধিকার সংরক্ষণে ব্যবসায়ীদের প্রতি আহবান জানান। এছাড়া ফুটপাত দখলমুক্ত রাখতে ফুটপাত দখলকারীদের মৌখিকভাবে সর্তক করেন তিনি। এব্যাপারে জৈন্তাপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মৌরীন করিম জানান,পবিত্র রমজান মাসে ভেজাল ও নিন্মমানের খাদ্য সামগ্রী বিক্রয় এবং নিত্যপণ্যের বাড়তি দাম নিলে কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না। ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইনের আওতায় ব্যবস্থা নেওয়া হবে। জনপ্রশাসন কর্মকর্তা হিসাবে,খাদ্যের গুণগত মান ও মূল্য ঠিক রাখা এবং পণ্যের মূল্যের তালিকা সংরক্ষণ করে প্রতিটি দোকানে টানিয়ে রাখার নির্দেশ দিয়েছি। ঈদের আগপর্যন্ত বাজার মনিটরিংয়ের কাজ অব্যাহত থাকবে। যাতে জনসমাগম স্থানে গাড়ী পার্কিং,অবৈধ স্থাপনা,ফুটপাত দখল, ভেজাল এবং কারচুপি বন্ধে বাজারগুলোতে নিয়মিত ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হবে। এদিকে জৈন্তাপুর মডেল থানা পুলিশের পক্ষ থেকে নেওয়া হয়েছে বাড়তি নিরাপত্তা ব্যবস্থা। পুলিশের নিরাপত্তা ব্যবস্থায় জৈন্তাপুর উপজেলা সদরের বিতান-বিপণীসহ সকল এলাকায় রাখা হবে নজরদারি। উপজেলা সদরে যে কোনো ধরনের অপরাধ দমনে সক্রিয় থাকবে পুলিশ। এব্যাপারে জৈন্তাপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ খান মো.মাইনুল জাকির জানান,পবিত্র রমজান মাসে আমাদের থানা পুলিশের পক্ষ থেকে জনসাধারণের নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে। যাতে করে জনসাধারণ নির্বিঘ্নে চলাফেরা বা সপিং করতে পারে বিপণী বিতানগুলোতে।

Top