বান্দরবানের লামায় জিয়াউর রহমানের ৩৭ তম শাহাদাত বার্ষিকী পালিত।

received_256762521735029.jpeg

আরিফুল ইসলাম,(লামা)বান্দরবান প্রতিনিধি:
বান্দরবানের লামায় স্বাধীনতার ঘোষক, রণাঙ্গণের বীর মুক্তিযোদ্ধা, বহুদলীয় গণতন্ত্রের প্রবক্তা এবং বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান এর ৩৭ তম শাহাদাত বার্ষিকী পালিত হয়েছে। লামা উপজেলা ও পৌর বিএনপি এবং সকল অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা আলোচনা সভা, দোয়া মাহফিল ও ইফতার পার্টির মধ্য দিয়ে শাহাদাত বার্ষিকী পালন করে।
বৃধবার (৩০ মে) বিকেলে লামা প্রেস ক্লাবের ৩য় তলায় হলরুমে কর্মসূচীসমুহ পালন করে বিএনপি। অনুষ্ঠানে দেড় শতাধিক নেতাকর্মীরা অংশগ্রহণ করে।
পৌর বিএনপির সহ-সভাপতি আবু তাহের মিস্ত্রির সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন, লামা পৌর বিএনপির সভাপতি আব্দুর রব। ছাত্রদল মাতামুহুরী কলেজ শাখার সাধারণ সম্পাদক আরাফাত হোসেন বুলবুল এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে আরো উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা বিএনপির যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক মো. সাইফুদ্দিন (কাউন্সিলর), সাংগঠনিক সম্পাদক মো. রুহুল আমিন, পৌর বিএনপির সহ-সভাপতি সোহরাব হোসেন, যুগ্ন সম্পাদক আরিফ চৌধুরী, উপজেলা ছাত্রদলের আহবায়ক সাফায়েত হোসেন রাসেল সহ প্রমূখ।
বক্তারা বলেন, আজ ৩০ মে বহুদলীয় গণতন্ত্রের প্রবক্তা শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের ৩৭তম শাহাদাত বার্ষিকী। জিয়াউর রহমান ১৯৮১ সালের এই দিনে চট্টগ্রাম সার্কিট হাউসে সেনাবাহিনীর কিছু বিপথগামী সদস্যের হাতে নির্মমভাবে শহীদ হন। জিয়া ছিলেন আধুনিক বাংলাদেশের রূপকার। তিনিই জাতির সঙ্কটময় মুহুর্তে বারবার দাঁড়িয়েছেন নির্ভয়ে, মাথা উঁচু করে। বিপর্যস্ত জাতিকে রক্ষা করেছেন সর্বোচ্চ ঝুঁকি নিয়ে। স্বাধীনতা যুদ্ধে তার অতুলনীয় ভূমিকা ইতিহাসে উজ্জ্বল হয়ে আছে।
তার শাহাদাতের পর তার সহধর্মিনী বেগম খালেদা জিয়া দলের হাল ধরেন। তিন দশকের বেশী সময় ধরে দলটির নেতৃত্ব দিচ্ছেন তিনি। খালেদার নেতৃত্বে দুই বার সরকার গঠন করে বিএনপি। তবে ২০০৭ সালে ক্ষমতা ছাড়ার এগার বছর পার হলেও এখনো জনগণের অধিকার আদায়ে আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছে দলটি। বর্তমান সরকার আগামী নির্বাচনে নিশ্চিত পরাজয় হবে জেনে খালেদা জিয়াকে মিথ্যা মামলা দিয়ে জেলে আটক করে রেখেছে। আন্দোলনের মাধ্যমে দেশনেত্রীকে মুক্ত করা হবে। বক্তারা খালেদা জিয়ার মুক্তি কামনা করেন।

Top