রূপকথা : “একটি বুলেট”

IMG_20180529_035420.jpg

– অন্ধকার চারিদিকে। দাড়িয়ে অাছি অনিশ্চয়তার মাঝে। অবস্থান নির্নয়ও অসম্ভব। অামাকে নিয়ে ব্যস্ত ঐ অাগন্তুকরা। তখনও জানতাম না একটু পর ইতিহাসে পরিণত হব। জানতাম না একটি বুলেট অপেক্ষা করছে অামার জন্য। হঠাৎ বিকট আওয়াজ। পরক্ষণে বুঝলাম একটি বুলেট এসে লেগেছে গায়ে। সুযোগই পেলাম না একটু কান্না করার। যন্ত্রনার কষাঘাতে সতেজ দেহটি নিথর হয়ে পড়ে গেল। হঠাৎ চোখের সামনে অামার মেয়ে দুটির অসহায় মুখখানা ভেসে উঠল। অামাকে ডাকতে লাগল, “বাবা, ওহ বাবা, কথা বলনা তুমি। তুমি রাগ করেছ? শুন, আমরা আর বায়না ধরবনা। শুধু তুমি একবার মামনি বলে ডাক”। অামার মৃত্যু হল। মেয়ে দু’টির কন্ঠ কানে ভেসে আসলেও আমি আজ অসহায়। কেননা, চিরতরে হারিয়েছি উত্তর দেয়ার সামর্থ।

– ঐ একটি বুলেট। হাজারটা হাতেগড়া ভাঙ্গা স্বপ্ন। একটি পরিবারের অাত্মচিৎকার। অবুঝ শিশুদের নিষ্পাপ চাহনী। প্রিয়তমার কান্নার আহাজারী। আপনজনদের হাহাকার। শুভাকাঙ্খিদের ভালবাসার বহিঃপ্রকাশ। এই সব মিলিয়েই আজ আমার চির বিদায়ের ঘন্টা বেজেছে। আমি চলে গেলাম সাড়ে তিন হাতের ঘরে। অনিশ্চয়তার কঠিন পথে রেখে গেলাম তোদের।

#সাথে প্রশ্ন রেখে গেলাম, আমার মৃত্যুর জন্য আমি দায়ী? নাকি আমাকে হত্যা করা হয়েছে?

ক্ষুদে লেখক- এস. এম. রুবেল

Top