সিলেটের এম. সাইফুর রহমান শিশু পার্ক’ নাম পরিবর্তন হয়ে ‘জননেত্রী শেখ হাসিনা শিশুপার্ক’

33489601_190341545120504_8405214993561157632_n.jpg

তাইবুর রহমান সিলেট প্রতিনিধি :
সিলেটে এম সাইফুর রহমানের নাম মুছে ‘জননেত্রী শেখ হাসিনা শিশুপার্ক’ করা হচ্ছে। দক্ষিণ সুরমার আলমপুরস্থ নির্মাণাধীন শিশু পার্কের যাত্রা শিগগির শুরু হবে। আগামী জুলাইয়ে এই পার্ক উদ্বোধন করার প্রস্তুতি চলছে। দীর্ঘ ১২ বছর পর আলোর মুখ দেখছে সিলেটের দক্ষিণ সুরমার এম সাইফুর রহমান পার্কটি। তবে ‘এম. সাইফুর রহমান শিশু পার্ক’ নাম পরিবর্তন করে ‘জননেত্রী শেখ হাসিনা শিশু পার্ক’ নামে নামকরণ করা হয়েছে।
.
সিলেট সিটি করপোরেশনের প্রধান প্রকৌশলী নুর আজিজ জানান, তৎকালীন এম সাইফুর রহমান অর্থ ও পরিকল্পনামন্ত্রী থাকা অবস্থায় সিলেটের দক্ষিণ সুরমার হবিনন্দী মৌজার ৩ দশমিক ৭৭ একর ভূমির উপর শিশুপার্ক নির্মাণের কাজ শুরু হয়। প্রথম দফায় স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় থেকে পার্কের জন্য ১৭ কোটি ৬৫ লাখ টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়। ২০০৬ সালের জুলাই থেকে ২০০৮ সালের জুন পর্যন্ত ওই বরাদ্দ থেকে ৫ কোটি ২৫ লাখ টাকা খরচ করে সিটি করপোরেশন। এ টাকায় জমি অধিগ্রহণ, মাটি ভরাট, অভ্যন্তরীণ লাইটিং, গাছের চারা লাগানো এবং সীমানা প্রাচীর ও টিকিট কাউন্টার নির্মাণ কাজ সম্পন্ন করা হয়।
.
নির্ধারিত সময়ের মধ্যে পুরো কাজ সম্পন্ন করতে না পারায় ২০০৮ সালের জুলাইয়ে বরাদ্দের ১২ কোটি ৪০ লাখ টাকা ফেরত যায়। টাকা ফেরত যাওয়ায় রাইড বসানো ও সিলেট- জকিগঞ্জ সড়কের সঙ্গে পার্কের সংযোগ সড়ক (এপ্রোচ রোড) নির্মাণসহ পূর্ণাঙ্গ প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়নি। এরপর থেকেই পরিত্যক্ত অবস্থায় ১২ বছর ধরে অদৃশ্য কারণে চালু করা হচ্ছে না পার্কটি।
.
পার্কের কাজ শেষ করতে সম্প্রতি ৭ কোটি টাকার একটি প্রকল্প গ্রহণ করা হয়। এই প্রকল্পের আওতায় চীনা একটি কোম্পানির সাথে চুক্তি করে পার্কে রাইড বসানোর কাজ চলছে। শিশুদের বিনোদনের জন্য ‘মনোরেল’ ও ‘ম্যাজিক প্যারাসুট’ সহ মোট ৯টি রাইড বসানোর কাজ চলছে।
.
ম্যাজিক প্যারাসুটে একসাথে ১৮জন ৭০ ফুট উঁচুতে উঠানামা করতে পারবেন। মনোরেলে মাটি থেকে ১৫ ফুট উচ্চতায় এক হাজার ৩৬১ ফুট দূরত্ব অতিক্রম করা যাবে। এটি থাকবে পার্কের চারপাশ জুড়ে। এছাড়া পাইরেটশিপ, টুইস্টার, বাম্পার কার, ফ্রুট ফ্লাইং চেয়ার, ক্যারসেল, জাম্পিং ফ্রগ ও ভিজিটিং ট্রেন রয়েছে। ভিজিটিং ট্রেন দিয়ে একসাথে ২৬ জনকে নিয়ে ৪২০ ফুট ঘোরা যাবে। ৯টি রাইড ছাড়া বাকিগুলোতে বিনা খরচে চড়া যাবে।
.
প্রকল্পের কাজের প্রায় শেষ পর্যায়ে এসে পার্কের নাম নির্ধারণ করা হয়েছে। সম্প্রতি অর্থমন্ত্রী ও সিলেট-১ আসনের সংসদ সদস্য আবুল মাল আবদুল মুহিতেরএকটি ডিও লেটারের সূত্র ধরে পার্কটির নামকরণ হয় ‘জননেত্রী শেখ হাসিনা শিশুপার্ক’। এর আগে এ পার্কের নাম ছিল ‘এম সাইফুর রহমান শিশু পার্ক’। সিলেট সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা নুরুল হক বলেন, এক চিঠির মাধ্যমে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় পার্কের নাম চূড়ান্তকরণের বিষয়টি অবহিত করে বলে জানা গেছে। ইতোমধ্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পার্কের নামকরণ বিষয়ে চিঠি এসেছে।

Top