ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণে ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়াররা নেতৃত্ব দেবে:এলিট।

received_2061291250793912.jpeg

শাহারিয়ার সানভি:
ডিজিটাল বাংলাদেশ এখন আর স্বপ্ন নয়। করিগরী ও তথ্য প্রযুক্তির প্রসারের কারনে বিশ্ব দরবারে বাংলাদেশ আজ উন্নতির শিখরে পৌছে গেছে। প্রযুক্তি নির্ভর উন্নয়নের এই অগ্রযাত্রা আরো বিকশিত করতে শিক্ষার্থীদের কারিগরী শিক্ষায় শিক্ষিত হতে হবে। তরুন প্রজন্মের প্রতিনিধিরা কারিগরী শিক্ষায় শিক্ষিত হয়ে আগামীতে বাংলাদেশকে বিশ্ব দরবারে নিয়ে যাবে উন্নতির চরম শিখরে। গতকাল বুধবার (১৬ মে) বিকালে ন্যাশনাল ইন্সটিটিউট অব টেকনোলজি (এনআইটি’র) ২০১৪-১৫ তম ব্যাচের শিক্ষার্থীদের বিদায় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখতে গিয়ে এসব কথা বলেন বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের আন্তর্জাতিক বিষয়ক উপ কমিটির সদস্য জুনিয়র চেম্বার বাংলাদেশ এর নির্বাহী সহ সভাপতি নিয়াজ মোর্শেদ এলিট এসব কথা বলেন।
তিনি বলেন, দেশে একের পর এক গড়ে উঠেছে শিল্প কারখানা, বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল। এসব শিল্প প্রতিষ্ঠানে প্রকৌশলীদের বিশাল কর্মক্ষেত্র সৃষ্টি হচ্ছে। এনআইটি’র মাধ্যমে যারা বিভিন্ন সেক্টরে ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার হিসেবে শিক্ষা জীবন শেষ করছে তারা আগামীর উন্নয়ন সমৃদ্ধ বাংলাদেশ নিজেদের যোগ্যতা দিয়ে নেতৃত্ব দেবে।
বিদায়ী শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, জীবনে সাফল্য পেতে হলে অধ্যাবসায় এবং চেষ্টার কোন বিকল্প নেই। দেশপ্রেমে উদ্বুদ্ধ হয়ে স্ব স্ব ক্ষেত্রে প্রত্যেকে কাজ করে গেলে শীঘ্রই উন্নত দেশের কাতারে পৌছাবে বাংলাদেশ।
এনআইটির চেয়ারম্যান আহসান হাবিব এর সঞ্চালনায় বিদায়ী অনুষ্ঠানে প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আইডিইবি চট্টগ্রাম এর সাধারণ সম্পাদক জসিম উদ্দিন। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আইডিইবি চট্টগ্রাম এর সাবেক সাধারণ সম্পাদক আবু তাহের, সমাজকর্মী নোমান উল্লাহ বাহার।
এনআইটির ইন্সট্রাক্টর অরুপ আচার্য’র সঞ্চালনায় বিদায় অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন ইন্সট্রাক্টর রাজেশ, বিদায়ী শিক্ষার্থী মিজান, মোসলেম উদ্দিন শিবলী, জাহেদুল ইসলাম, ইসমত দৌহা, মাহবুবুল আলম প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে এনআইটির ইলেকট্রিক্যাল, ম্যাকানিক্যাল, কম্পিউটার, ইলেকট্রনিক্স, সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং আর্কিটেকচার বিভাগের বিদায়ী শিক্ষার্থীদেও উদ্দেশ্যে আলাদা আলাদা ভাবে মান পত্র পাঠ করা হয়।। প্রতিষ্ঠানের ৬ টি ট্র্যাডে ৭১৩ জন শিক্ষার্থীকে বিদায় সংবর্ধনা দেওয়া হয়েছে।

Top