দোয়ারাবাজারে ষষ্ঠ শ্রেনীর ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে লম্পট শহিদুল গ্রেফতার

images-2.jpg

এম এ মোতালিব ভুঁইয়া :
দোয়ারাবাজারে ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রী ধর্ষণকারী লম্পট শহিদুল ইসলামকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সে দোয়ারাবাজার উপজেলার সুরমা ইউনিয়নের বরকতনগর গ্রামের আছমত আলীর ছেলে। ধর্ষিতার পিতা গত বৃহস্পতিবার রাতে দোয়ারাবাজার থানায় অভিযোগ দায়ের করলে ঐ রাতেই দোয়ারাবাজার থানা পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে। শুক্রবার তাকে সুনামগঞ্জ জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।
জানা যায়, গত ২৬ মার্চ সন্ধ্যায় উপজেলার সুরমা ইউনিয়নের টিলাগাঁও গ্রামের সমুজ আলী স্কুল এন্ড কলেজের ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রী (১১) প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে ঘরের বাইরে গেলে একই প্রতিষ্ঠানের একাদশ শ্রেণির ছাত্র লম্পট শহিদুল ইসলাম তার মুখ চেপে ধরে পার্শ্ববর্তী জঙ্গলে নিয়ে তাকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। এরপর থেকে স্থানীয় ভাবে নিস্পত্তির করার জন্য বিষয়টি ধামাচাপা দিতে চেষ্টা চালায় প্রতিপক্ষের লোকজন। কিন্তু এতে কোনো সুরাহা না হওয়ায় বুধবার ধর্ষিতার পিতা বাদী হয়ে শহিদুল ইসলামের বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন আইনের ৭/৯ এর ১ ধারায় দোয়ারাবাজার থানায় মামলা (নং-৩) দায়ের করেন।
দোয়ারাবাজার থানার ওসি সুশীল রঞ্জন দাস বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, মামলার আসামীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাকে শুক্রবার সকালে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে

Top