মহেশখালীতে বিপুল পরিমাণ অস্ত্র ও গুলাবারুদসহ ৫ সন্ত্রাসী আটক।।

received_1664368686951953.jpeg

আবদুর রাজ্জাক,কক্সবাজার প্রতিনিধি:
কক্সবাজারের মহেশখালী উপজেলার হোয়ানক ইউনিয়নে পুলিশ ও সন্ত্রাসীদের মধ্যে এক বন্দুক ঘটনা ঘটে। ঘন্টাব্যাপী বন্দুক যুদ্ধের ঘটনায় পুলিশ ঘটনাস্হলে অভিযান চালিয়ে ৬ টি দেশীয় তৈরী এলজি বন্দুক ও ৭ রাউন্ড গুলিসহ ৫ সন্ত্রাসী আটক করেছে। বৃহস্পতিবার(০৩ মে) রাত্রে উপজেলার হোয়ানক ইউনিয়নের কেরুনতলী নয়া পাড়াস্হ পাহাড়ি এলাকায় এই বন্দুক যুদ্ধের ঘটনাটি ঘটে। ঘন্টাব্যাপী বন্দুক যুদ্ধের ঘটনায় সন্ত্রাসীরা ১ শত রাউন্ড গুলি ও পুলিশ ২ রাউন্ড পিস্তলের গুলিসহ ৪১ রাউন্ড গুলি বর্ষণ করে বলে থানা সূত্রে জানা যায়।
আটককৃতরা সন্ত্রাসীরা হলেন,সলিম উল্লাহ,পিতা-মেহের আলী,সাং- নয়াপাড়া,কেরুনতলী,হোয়ানক,মহেশখালী,মো মনির (২০), পিতা-হাছন আলী, আক্কেল আলী(৫২) ,পিতা-মৃত দুদু মিয়া,হাবিব উল্লাহ(২৩),পিতা-শের আলী ও মো: রফিক(২৩),পিতা-আবুছৈয়দ।
সর্ব সাং-কেরুনতলী,হেয়ানক, মহেশখালী, কক্সবাজার।
থানা সূত্রে জানা যায়,বৃহস্পতিবার(০৩ মে) রাত্রে উপজেলার হোয়ানক ইউনিয়নের কেরুনতলী নয়া পাড়াস্হ পাহাড়ি এলাকায় একদল স্বসস্ত্র সন্ত্রাসী সড়ক ডাকাতির প্রস্তুতি নেয়ার গোপন সংবাদ পেয়ে মহেশখালী থানার অফিসার ইনচার্জ প্রদীপ কুমার দাশ(পিপিএম)’র নেতৃত্বে একদল পুলিশ উক্ত এলাকার চতুর্দিকে ঘিরে ফেললে সন্ত্রাসীরা পুলিশের উপস্হিতি টের পেয়ে পুলিশকে লক্ষ্য করে এলোপাতাড়ি গুলি বর্ষণ করলে পুলিশও আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি চালায়। এসময় সন্ত্রাসী গ্রুপের অন্যান্য সদস্যরা পিছু হটে পালিয়ে গেলে পুলিশ ঘটনাস্হলে অভিযান চালিয়ে ৬ টি দেশীয় তৈরী এলজি বন্দুক ও ৭ রাউন্ড গুলিসহ ওই এলাকার মেহের আলীর ছেলে সলিম উল্লাহ,হাছন আলীর ছেলে মো মনির (২০),মৃত দুদু মিয়ার ছেলে আক্কেল আলী(৫২),শের আলীর ছেলে হাবিব উল্লাহ(২৩) ও আবু ছৈয়দের ছেলে মো: রফিক(২৩) নামের ৫ জন সন্ত্রাসীকে আটক করে। প্রায় ঘন্টাব্যাপী বন্দুক যুদ্ধের ঘটনায় সন্ত্রাসীরা ১ শত রাউন্ড গুলি ও পুলিশ ২ রাউন্ড পিস্তলের গুলিসহ ৪১ রাউন্ড গুলি বর্ষণ করে বলে পুলিশ জানিয়েছেন।
এব্যাপারে পুলিশ বাদি হয়ে মহেশখালী থানায় সংশ্লিষ্ট আইনে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে থানা সূত্রে জানা যায়।

Top