মাঝ আকাশে বিপত্তি! নিরাপদে বিমান অবতরণ করিয়ে ট্রাম্পের প্রশংসা কুড়ালেন মহিলা পাইলট

119091-trump.jpg

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :
বিমানকে জরুরি অবতরণ করিয়ে ১৪৯ জনের প্রাণ বাঁচিয়েছিলেন মহিলা পাইল টেমি জো শাল্টস। মঙ্গলবার তাঁর এই সাহসিকতার জন্য ওই মহিলা বিমান চালককে বিশেষ সম্মানে ভূষিত করেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। এ দিন শাল্টস এবং তাঁর টিমকে হোয়াইট হাউসে আমন্ত্রণ জানিয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্ট বলেন, “ওঁদের সম্মানিত করতে পেরে আমি গর্বিত।”

গত ১৭ এপ্রিল নিউ ইয়র্ক থেকে ডালাস-গামী সাউথওয়েস্ট এয়ারলাইন্সের বিমানে মাঝ আকাশে যান্ত্রিক গোলযোগ দেখা যায়। বিমানের বাঁ-দিকের ইঞ্জিনে আগুন ধরে যায়। এই অবস্থায় বিমান চালক টেমি অত্যন্ত দক্ষতার সঙ্গে বিমানটিকে ফিলাদেলফিয়ার বিমানবন্দরে অবতরণ করান। এই ঘটনায় মৃত্যু হয় ৪৩ বছর বয়সী এক মেক্সিকান মহিলার। তবে টেডির সৌজন্যে প্রাণে বাঁচেন বাকি ১৪৯ যাত্রী। এদিন ট্রাম্প বলেন, “অসম্ভবকে সম্ভব করে দেখিয়েছেন টেডি। ঘোরতর বিপদে এতগুলো প্রাণ বাঁচানোর জন্য স্যালুট আপনাকে। ধন্যবাদ অন্যান্য বিমানকর্মীদেরও।”

টেডির এই অবতরণে সঙ্গে অনেকেই তুলনা করছেন “মিরাক্যাল অন দ্য হাডসন”-র চালক চেসলে সুলেনবার্গারের সঙ্গে। ২০০৯-র জানুয়ারিতে পাখির সঙ্গে ধাক্কা লেগে ইউএস এয়ারওয়েজ বিমান মাঝ আকাশে বিকল হয়ে পড়ে। ওই বিমানকে হাডসন নদীতে নিরাপদে অবতরণ করিয়েছিলেন সুলেনবার্গার। উল্লেখ্য, মার্কিন নৌসেনার প্রথম মহিলা যুদ্ধবিমান চালকদের মধ্যে একজন ছিলেন টেমি জো শাল্টস।

Top