কমলগঞ্জে প্রেমিক যুগল আটক; অতপর পুলিশ ফাঁড়িতে বিয়ে

Gnews71_8355.jpg

নির্মল এস পলাশ, কমলগঞ্জ প্রতিনিধি :
মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার পতনঊষার ইউনিয়নের মাইজগাঁও গ্রামে পারিবারিকভাবে বিয়ের প্রস্তাবে ব্যর্থ হওয়ায় প্রেমিকার বাড়িতে এসে অবস্থান নেয় প্রেমিক। পরে স্থানীয় লোকজন তাদের জ্ঞিাসাবাদ ও পারিবারিকভাবে প্রণয়ের সূত্রে বিয়ের বিষয়ে ব্যর্থ ও অপ্রীতিকর অবস্থার সৃষ্টি হওয়ায় জনতা প্রেমিক যুগলকে আটক করে শমশেরনগর পুলিশ ফাঁড়িতে হস্তান্তর করে। ঘটনাটি ঘটেছে গত রোববার ২৯ এপ্রিল রাত ১১টায় কমলগঞ্জ উপজেলার পতনঊষার ইউনিয়নের মাইজগাঁও গ্রামে। প্রেমিক যুগলরা হলেন পতনঊষার ইউনিয়নের গোপীনগর গ্রামের মো: কাশেম আলীর ছেলে সিএনজি চালক জুবের আহমদ (২২) ও একই ইউনিয়নের মাইজগাঁও গ্রামের আফরোজ মিয়া ওরপে ময়না মিয়ার মেয়ে পলি বেগম (১৯)। তাদের রাতভর শমশেরনগর পুলিশ ফাঁড়িতে রাখা হয়।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, গত রোববার রাত অনুমান ১১টার দিকে প্রেমিক জুবের আহমদ তার প্রেমিকা পলি বেগমের সাথে দেখা করতে মাইজগাঁও গ্রামে তার (পলি বেগমের) নানা বাড়িতে গেলে স্থানীয়রা তাদের আটক করে পুলিশে সৌপর্দ্দ করে। তিন বছরের বেশি সময় ধরে তাদের প্রেম চলে আসছিল বলে পুলিশ জানায়। শমশেরনগর পুলিশ ফাঁড়ির উপ-পরিদর্শক আবু সায়েম মো: আব্দুর রহমান তাদের উভয়ের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক রয়েছে জেনে তাদের বিয়ে দিতে চাইলে তারা তাতে সম্মত হয়। উভয় পরিবারের সম্মতিক্রমে ৫ লাখ টাকা মোহরানা সাব্যস্ত করে কাজী ঢেকে সোমবার সন্ধ্যায় শমশেরনগর পুলিশ ফাঁড়িতে তাদের বিয়ে পড়িয়ে দেন। এ সময় স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিতিতে উভয়পক্ষের মধ্যে মিষ্টি মুখ করানো হয়।

কমলগঞ্জ থানার ওসি মো: মোকতাদির হোসেন পিপিএম ও শমশেরনগর পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ ওসি অরুপ কুমার চৌধুরী ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন ।

Top